আপত্তিকর অবস্থায় ২৯ তরুণ-তরুণীকে হাতেনাতে আটক করল ভ্রাম্যমাণ আদালত

১৪ ফেব্রুয়ারির আগেই বিশেষ অভিযানে আবাসিক হোটেল থেকে অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগে ৩১ জনকে আটক করা হয়েছে। যাদের মধ্যে ২৯ তরুণ-তরুণী ইতিমধ্যে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে দুইজন স্কুলছাত্রী, যাদের বয়স ১৮ বছরের নিচে হওয়ায় তাদের সেফহোমে পাঠানো হয়েছে।

আজ ১৩ ফেব্রুয়ারি বুধবার সকাল থেকে ফরিদপুর শহরে অভিযান চালায় জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এরপর দুইটি আবাসিক হোটেল থেকে ওই তরুণ-তরুণীদের আটক করা হয়। পরে দুপুরের দিকে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি) পারভেজ মল্লিক।

এদিকে আদালত সূত্রে জানা যায়, জেলা প্রশাসনের কাছে অভিযোগ রয়েছে যে, ফরিদপুর শহরের বেশ কয়েকটি আবাসিক হোটেল প্রতিনিয়ত অসামাজিক কার্যকলাপ চলছে। এ অভিযোগের ভিত্তিতে শহরের রংধনু আবাসিক হোটেল ও হোটেল গুলশান প্যালেসে অভিযান চালানো হয়।

এ ব্যাপারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী হাকিম পারভেজ মল্লিক গণমাধ্যমকে জানান, সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ও মাদকমুক্ত শহর গড়তে জেলা প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘আটক ৩১ জনের মধ্যে ২৯ জনের প্রত্যেককে দণ্ডবিধির ২৯৪ এর ‘ক’ ধারা মোতাবেক ৭ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।’