কঠিন শাস্তি হতে পারে মোহামেডানের

ডিপিএল টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্টের প্রথম দিনেই বিতর্কের জন্ম দিয়েছে ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডান। প্লেয়ার ড্রাফট থেকে কেনা ৩ তারকাকে তারা বাদ দিতে চাচ্ছে। এই তিনজন হল- মোহাম্মদ আজিম, মোহাম্মদ নুরুজ্জামান ও রাহাতুল ফেরদৌস। তাদের পরিবর্তে শাহাদাত হোসেন, তুষার ইমরান ও সাকলাইন সজীবকে নিতে চাচ্ছে তারা।

ডিপিএলের নিয়ম হল, ড্রাফটের পর দল বদল করা যাবে। এক ক্লাব থেকে অন্য ক্লাবে চলে যাওয়া যাবে বা ক্লাব চাইলে অন্য ক্লাবের কাছে বিক্রি করে দিতে পারবে। কিন্তু কাউকে দলচ্যুত করার কোন নিয়ম নেই।

এটি নিয়ে সিডিএম প্রধান কাজি এনাম বলেন, আমি এটা পত্রিকাতে দেখেছি। কিন্তু এটার কোন সুযোগ নেই। যদি কোন দল এমন করে তাহলে তাদের শাস্তি দেয়ার ক্ষমতা রাখে সিডিএম।

তিনি বলেন, ড্রাফট থেকে বা ড্রাফটের বাইরে থেকে কোন খেলোয়ার রেজিষ্টার করার পর সেই খেলোয়ারের দায়িত্ব সেই ক্লাবের। যদি প্লেয়ারের পেমেন্ট নিয়ে প্রশ্ন আসে তাহলে বিসিবি ও সিডিএম সেই দলকে শাস্তি দেয়ার অধিকার রাখে।

তিনি আরো বলেন, ড্রাফট থেকে নেয়া কোন খেলোয়ারকে যদি খেলাতে না চায় বা রাখতে না চায় তাহলে সেই ক্লাবের চুক্তি অনুযায়ী টাকা দিতে হবে। যদি না দেয় তাহলে পয়েন্ট কাটাসহ সেই দলকে নিষিদ্ধ করার ক্ষমতা রাখে সিডিএম।