কলকাতাকে হারিয়ে বিজয়ী বাংলাদেশ

বাংলাদেশ ও কলকাতার শিল্পীদের নিয়ে আয়োজিত হয়েছিলো নাচের প্রতিযোগিতামূলক অনুষ্ঠান ‘বাজলো ঝুমুর তারার নূপুর’। দুই বাংলার তারকাদের এই লড়াইয়ে শেষমেষ বাজিমাত করলো এপার বাংলার তারকারাই। বাংলাদেশি শিল্পীদের মধ্যে ছিলেন, অভিনেত্রী ইশানা, ভাবনা, জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়া, স্পর্শিয়া, অমৃতা এবং সাফা কবির।

এদিকে বিজয়ী হিসেবে তারা পেয়েছেন নাগরিক টিভির সৌজন্যে নগদে মোট ছয় লাখ টাকা, ক্রেস্ট এবং কক্সবাজারের ট্যুরের সুযোগ। আর রানারআপ বিজয়ী হিসেবে কলকাতার দল পেয়েছে নগদে তিন লাখ টাকা, এবং কক্সবাজারের ট্যুরের সুযোগ। কলকাতার দলের হয়ে নাচের এই রিয়েলিটি শোয়ে অংশ নিয়েছিলেন রিমঝিম, সোহিনী, এনা সাহা, লাভলী, তিথি ও প্রীতি।

এদিকে গ্র্যান্ড ফিনালের পর্বটিতে কলকাতার সোহিনি পারফরমেন্স করেন ‘পাগলু থোরাসা করলে রোমান্স’ গানের সঙ্গে। ‘এই রাত তোমার আমার’ এবং হিন্দি জনপ্রিয় একটি সুরের মিশ্রনে তৈরিকৃত ফিউশন নাচ নিয়ে মঞ্চ মাতান বাংলাদেশের ইশানা।

তাছাড়া কলকাতার এনা সাহা ছিলেন ‘সুন্দরী কমলা’ গানের সঙ্গে। বাংলাদেশের অমৃতা ‘আনন্দলোকে মঙ্গলালোকে’সহ কয়েকটি গানের সমন্বয়ে একটি ফিউশন ড্যান্স নিয়ে মঞ্চ মাতিয়েছেন।

এদিকে এই অনুষ্ঠান বিভাগের প্রধান কামরুজ্জামান বাবু জানান, প্রচার হওয়া ৬৯টি পর্বতে দুই বাংলার ৩০ জন তারকা অংশ নেয়। এ প্রতিযোগীতায় তারা নিজেরা এক একটি কঠিন নাচ তুলে ধরেছেন। অনেকেই নাচতে গিয়ে নাচ ভুলে গেছেন! কেউ কেউ নতুন করে সুযোগ চেয়েছেন। কিন্তু বিচারকরা তাদের সিদ্ধান্তে অটল ছিলেন!

এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশ এবং কলকাতার টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র শিল্পীদের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরি করতে ও উভয় বাংলার সংস্কৃতির ঐতিহ্যের ধারা দুই বাংলার টেলিভিশন দর্শকদের মাঝে তুলে ধরার জন্যই ‘বাজলো ঝুমুর তারার নূপুর’ নির্মাণ হয়। দুই দেশের শিল্পীদের অংশগ্রহণে নাচের এমন ধরনের অনুষ্ঠান এর আগে হয়নি।