জ্যামে বসেই আগুনে পুড়ে ছাই বাবুল

রাজধানীর চকবাজারে দেশের অন্যতম ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় এখন পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ ৭০ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এরমধ্যে অনেকেই রাস্তায় যানবাহনে, কেউবা রুমে ঘুমন্ত অবস্থায় আবার কেউ নিজ দোকানেই পুড়ে ছাই হয়েছেন।

তেমনই এক ব্যবসায়ী পেশায় জুতা দোকানদার, নাম মোশাররফ হোসেন বাবুল। জানা গেছে তার আরেক ব্যবসায়ী বন্ধুকে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে চকবাজারের চুড়িহাট্টা এলাকায় ট্রাফিক জ্যামের কারণে থেমেছিলো তার রিকশা।

আর সেই থামাই কাল হলো তার জন্য। হঠাৎ বিস্ফোরণে অজানায় হারিয়ে গেলেন বাবুল। তবে বিধাতার লীলা খেলায় বেঁচে গেছেন রিকশায় তার সঙ্গে থাকা বন্ধু সাইফুল ইসলাম।

আহত হয়ে প্রানভয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করার পর, মর্গে এসেছেন বন্ধুর লাশ খুঁজতে। অবশেষে মরদেহ শনাক্তের পর ভেঙ্গে পড়েছেন অঝোর কান্নায়।

এদিকে বেঁচে যাওয়া সাইফুল গণমাধ্যমকে বলেন, ‘একসঙ্গেই রিকশায় ফিরছিলাম আমরা। এরমধ্যেই বিকট শব্দে দুইতলা সমান আগুন। আমরা দুইদিকে পরে গেলাম। আমার মাথায় আগাত লাগে। কিন্তু আমার বন্ধু তো আর নেই। রিকশাওয়ালা ঘটনাস্থলেই মারা যায়।’

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত চকবাজার আগুনে এখন পর্যন্ত ৭০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো উদ্ধার কাজ চলছে। আরও মরদেহ থাকতে পারে বলে জানিয়েছে পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. জাভেদ পাটোয়ারী।