দিল্লি, মুম্বাইসহ ভারতের ৫ শহরে জরুরি সতর্কতা জারি

গত কয়েকদিন ধরে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এদিকে কাশ্মীরের আকাশ থেকে দুটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান গুলি করে ভূপাতিত করেছে পাকিস্তান। এদিকে কাশ্মীরে জঙ্গি হামলার বদলা নিতে পারে পাকিস্তান। এই অনুমান করে দিল্লি, মুম্বাই ছাড়াও ৫ শহরে উচ্চ পর্যায়ের সতর্কতা জারি করেছে ভারত সরকার। খবর এনডিটিভির।

তাছাড়া পরবর্তী ৭২ ঘন্টার জন্য জারি করা হয়েছে সতর্কতা। তাছাড়া এই সময়কে গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করা হয়েছে। যদিও এই সম্ভাব্য হুমকি সরাসরি পাকিস্তানের সেনার তরফ থেকে নয়, জঙ্গি সংগঠনের বিভিন্ন মডিউলগুলি সম্ভাব্য হামলার পিছনে থাকতে পারে বলে অনুমান। যে জঙ্গি গোষ্ঠীগুলি সক্রিয় রয়েছে উপত্যকায় এবং যেগুলিকে সাহায্য করছে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই।

এদিকে এক সূত্রের খবর অনুযায়ী, পঞ্জাব, রাজস্থান এবং গুজরাতের শহরগুলির যেসব জায়গায় পারমাণবিক অস্ত্র মজুত রয়েছে, বায়ুসেনার ঘাঁটি, কিংবা নৌসেনার ঘাঁটি রয়েছে সেইসব জায়গাগুলিতে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। শহরগুলির জঙ্গি দমন ইউনিটগুলিকে মৌখিকভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সম্ভাব্য জঙ্গি হামলা নিয়ে সতর্কতা বজায় রাখতে আজ ২৮ ফেব্রুয়ারি বুধবার বৈঠকের ডাক দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং।

তাছাড়া পঞ্জাবের পাঁচ জেলা গুরদাসপুর, তরণতারাণ, অমৃতসর, ফিরোজপুর এবং ফাজিলকায় পাকিস্তানের সঙ্গে সীমান্ত রয়েছে ৫৫৩ কিমি। ডিসি এবং এসএসপিদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আপৎকালীন পরিস্থিতিতে বাসিন্দাদের নিরাপত্তার বন্দোবস্তের ব্যবস্থা রাখতে। তবে এখনই সীমান্ত এলাকা থেকে কোনও বাসিন্দাকে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে না। এদিকে রাজস্থানের সঙ্গে পাকিস্তানের সীমানা রয়েছে প্রায় ১০৪৮ কিমি।

এদিকে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত আন্তর্জাতিক বর্ডারের ৫ কিমি ব্যাসার্ধে সন্ধে ছটা থেকে সকাল ৭ টার মধ্যে চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ইতোমধ্যেই গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি রাজ্যের জঙ্গি দমন বাহিনী, গোয়েন্দা বাহিনী এবং সীমান্ত জেলাগুলির আইজিদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।