পরমানু যুদ্ধে ভারতের কাছে পাত্তাই পাবেনা পাকিস্তান

পুলওয়ামা কাণ্ডের পরে ভারতকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তাঁর দাবি ছিল, পাকিস্তান আক্রমণ করলে তার যোগ্য জবাব দেওয়া হবে ভারতকে। ভারতের পক্ষ থেকেও পাকিস্তানের থেকে হিসেব বুঝে নেওয়ার হুমকি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পরমাণু শক্তিধর দুই দেশের মধ্যে চূড়ান্ত সংঘাতের পথে হাঁটবে কি না, তা নিয়েও জোর চর্চা চলছে।

এই অবস্থায় মুখ খুললেন পাকিস্তানের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি পরভেজ মুশারফ। পাকিস্তানের প্রাক্তন সেনা প্রধান স্পষ্টই স্বীকার করে নিয়েছেন, পরমাণু যুদ্ধ হলে পাকিস্তানের থেকে অনেক এগিয়ে ভারত। তাঁর কথায়, পাকিস্তান যদি ভারতে একটি পরমাণু বোমা ফেলে, তাহলে ভারত কুড়িটি পরমাণু বোমা ফেলে পাকিস্তানকে উড়িয়ে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে।

একদা দোর্দণ্ডপ্রতাপ প্রাক্তন পাক রাষ্ট্রপতি দুবাইতে সাংবাদিকদের প্রশ্নে এমনই জবাব দিয়েছেন। তাঁর কথায়, ‘‘ভারত-পাক সম্পর্ক আবারও বিপজ্জনক জায়গায় পৌঁছে গিয়েছে। তবে কোনও পরমাণু যুদ্ধ দু’ দেশের মধ্যে হবে না। কারণ আমরা যদি ভারতে একটা পরমাণু বোমা ফেলি, ওরা পাল্টা কুড়িটি বোমা ফেলে আমাদের শেষ করে দেবে। ফলে একমাত্র রাস্তা হচ্ছে প্রথমেই ভারতের উপরে পঞ্চাশটি পরমাণু বোমা ফেলা। যাতে ওদের আর কুড়িটি বোমা দিয়ে আঘাত করার অবস্থা না থাকে। কিন্তু পঞ্চাশটি বোমা নিয়ে আঘাত হানার জন্য আমরা কি প্রস্তুত?’’

পাকিস্তানের প্রাক্তন সেনা প্রধান নিজের দেশের সামরিক শক্তি সম্পর্কে যথেষ্টই ওয়াকিবহল। এই মুহূর্তে তিনি স্বেচ্ছা নির্বাসনে রয়েছেন। তবে মুশারফ আশাবাদী, দেশের রাজৈনিতক পরিবেশ আগের তুলনায় ভাল হওয়ায় এ বার তিনি হয়তো দেশে ফিরতে পারবেন।