ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগে ড. কামাল হোসেনের প্রতিক্রিয়া

মুক্তিযুদ্ধবিরোধী ভূমিকার জন্য জামায়াতে ইসলামীর ক্ষমা না চাওয়াকে কারণ দেখিয়ে ব্যারিস্টার আবদুর রাজ্জাকের দল ছাড়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষনেতা ড. কামাল হোসেন। আজ ১৯ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার ঢাকার মতিঝিলে নিজের চেম্বারে ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকের পর এই বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে কামাল এ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

এ সময় ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধবিরোধী ভূমিকার জন্য জামায়াতে ইসলামী ক্ষমা না চাওয়াকে কারণ দেখিয়ে পদত্যাগ করায় আমি তাকে স্বাগত জানাই।’

এ সময় জামায়াতের ক্ষমা আহ্বান যথেষ্ট কি-না জানতে চাইলে ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘আমি মনে করি না এটা যথেষ্ট না। মাত্র একজন নেতা ক্ষমা চাওয়ার কথা বলেছেন। তাদের ক্ষমা চাওয়া হবে বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে মেনে নেয়ার প্রথম পদক্ষেপ। কিন্তু ক্ষমা চাওয়ার মাধ্যমে সব কিছু মাফ হয়ে যাবে না।’

এ সময় স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকে একাদশ সংসদ নির্বাচন নিয়ে গণশুনানি আয়োজনের তারিখ এগিয়ে এনেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। পূর্ব-নির্ধারিত তারিখ ২৪ ফেব্রুয়ারির পরিবর্তে ২২ ফেব্রুয়ারি গণশুনানির নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিমকোর্ট বার অ্যাসোসিশন মিলনায়তনে এই গণশুনানি হবে।