মাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা!

মোঃ আশিকুর রহমান টুটুল, নাটোর প্রতিনিধি: এ কেমন শত্রুতা। মাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা! নাটোরের লালপুরে দুইটি পুকুরে গ্যাস ট্যাবলেট প্রয়োগ করে মাছ নিধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাতে কোন এক সময় উপজেলার ওয়ালিয়া ইউপির বাঘ পাড়া গ্রামে ও পাশবর্তী ভবানীপূর গ্রামে দুইটি পুকুরের এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, কে বা কাহারা রাতের অন্ধকারে শত্রুতা বসত দুইটি পুকুরের পানিতে গ্যাস ট্যাবলেট প্রয়োগ করে। পরে সকালে ওয়ালিয়া ইউপির বাঘ পাড়া পুকুরে মাটি
কাটতে গিয়ে পুকুরে মরা মাছ ভেসে থাকতে দেখে কাজের লোকেরা পুকুর মালিক মুঞ্জুকে খবর দেয়।

অপর দিকে, বেলা ১২টার দিকে ভবানীপুর গ্রামের রাহান কবীর রাব্বীর পুকুরে মরা মাছ ভেসে থাকতে দেখে স্থানীয়রা তাকে খবর দেয়। এতে ওয়ালিয়া বাঘ পাড়া পুকুরের মালিক মুঞ্জুরে প্রায় তিন লক্ষ টাকা ক্ষতি হয়েছে অপরদিকে ভবানীপুর গ্রামের পুকুরে প্রায় দুই লক্ষ টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে মাছ চাষী রাব্বি জানায় ।

এ ঘটনায় লালপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

বিষয়টি নিয়ে মাছ চাষী মুঞ্জু বলেন,‘সাড়ে তিন বিঘা জমিতে পুকুর খনন করে গত বছর থেকে শিং, টেংরা, রুই, কাতলা ও সিলভার কার্পসহ বিভিন্ন জাতের মাছ চাষ শুরু করেছিলাম। গত রাতে প্রতিহিংসা করে কে বা কারা আমার পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে মাছ মেরে ফেলেছে এতে আমার প্রায় ৩লক্ষ টাকা ক্ষতি হয়েছে।

তিনি আরও বলেন,’আমি গত দুই বছর থেকে পুকুরটি এক লক্ষ টাকা দিয়ে লিজ নিয়ে টেংরা, রুই, কাতলা ও সিলভার কার্পসহ বিভিন্ন জাতের মাছ চাষ শুরু করেছিলাম। গত রাতে কে বা কাহারা আমার পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে সব মাছ মেরে ফেলেছে এতে আমার দুই লক্ষ টাকা ক্ষতি হয়েছে।’

এ ব্যাপারে ওয়ালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান মাষ্টার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বিষয়টি নিয়ে লালপুর থানার ওসি নজরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, ‘এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত থানায় কেও কোন অভিযোগ করেনি, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’