সেনাবাহিনী ও জনগণকে যুদ্ধের জন্য তৈরি থাকতে বললেন ইমরান খান

পাকিস্তানি সীমান্তে ভারতীয় বিমানবাহিনীর অনুপ্রবেশের পরিপ্রেক্ষিতে দেশটিতে উচ্চ পর্যায়ে জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে শেষে ভারতকে সময়মতো জবাব দেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে পাকিস্তান। খবর দ্য ডন।

মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত দেশটির ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিল (এনএসসি)-এর জরুরি বৈঠক শেষে এক বিবৃতিতে এ কথা বলা হয়েছে।

জরুরি বৈঠক শেষে এনএসসি-র বিবৃতি বলা হয়েছে, পাকিস্তানের বালাকোটে হামলা চালিয়ে সন্ত্রাসী স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়ার পাশাপাশি বিপুল সংখ্যক মানুষকে হত্যা করার ভারতীয় দাবি প্রত্যাখ্যান করছি। কিন্তু পাকিস্তানি অংশে প্রবেশ করে ভারত যে আগ্রাসন চালিয়েছে যথা সময়ে ও যথাস্থানে এর জবাব দেয়া হবে।

এদিকে, বৈঠকে তিনি যে কোনও পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকার নির্দেশ দিয়েছেন বলে খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। খবরে বলা হয়, হামলার পর জরুরি ভিত্তিতে বৈঠকে বসেন ইমরান। মঙ্গলবার দুপুরে ইমরান খানের দফতরে বসে সেই বৈঠক। সেখানে উপস্থিত ছিলেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি, সেনা প্রধান কামার জাভেদ বাজওয়া, পাক সেনার মুখপাত্র আসিফ গফুরসহ একাধিক শীর্ষকর্তা।

এর আগে ভারতীয় বিমানবাহিনী পাকিস্তান সীমান্তে জইশ-ই-মোহাম্মদের একাধিক ঘাঁটি ধ্বংস করে দিয়েছে; এই হামলায় ২০০ থেকে ৩০০ জন নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ভারত।