ইনশাআল্লাহ, তারা জান্নাতে যাবেন: শোকাহত রাগবি তারকার ভিডিও বার্তা

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে হ্যাগলি ওভাল মাঠের খুব কাছের একটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় বন্দুকধারীর হামলায় ৪০ জন নিহত ও ২৭ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্দা আরডান। খবর বার্তা সংস্থা এএফপির।

সময় বন্দুকধারীর গুলিতে ৩ বাংলাদেশি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে। গুলিবিদ্ধদের সার্বিক খোঁজখবর রাখছে নিউজিল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশন।

এদিকে, এ হামলায় নিউজিল্যান্ডের শোকাহত রাগবি তারকা স্টোনি বিল উইলিয়ামস বলেছেন, ক্রাইস্টচার্চের মসজিদের এলোপাতাড়ি গুলিতে নিহতরা জান্নাতে যাবেন।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে একটি আবেগঘন ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করেন তিনি।

তিনি মাথায় ক্যাপ পরা এই ধর্মপ্রাণ মুসলমান একটি গাড়ির ভেতর বসে যখন এই ভিডিও দিচ্ছিলেন তখন তার চোখ দিয়ে অশ্রু ঝরছিল। হাত দিয়ে কয়েকবার তাকে চোখ মুছতে দেখা গেছে।

ভিডিওতে তিনি বলেন, ইনশাআল্লাহ, আজ যারা নিহত হয়েছেন, তারা জান্নাতে যাবেন। নিউজিল্যান্ডে এ ঘটনা ঘটায় আমি প্রচণ্ড মর্মাহত হয়েছি।

এদিকে, মার্কিন মুসলমানদের মানবাধিকার সংস্থা মুসলিম অ্যাডভোকেটস নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে ৩০ মুসল্লিকে হত্যার ঘটনায় শোক জানিয়েছে বিবৃতি দিয়েছে। বিভৎস এই হামলার ঘটনায় শোক জানিয়ে নিউজিল্যান্ডের মুসলমানদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে।

সতর্ক বার্তা বলা হয়েছে, গত কয়েক বছর ধরে সেখানে হামলার উপদ্রব বেড়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর পরিকল্পিত হামলার ঘটনা ঘটছে। মার্কিন মুসলমান সম্প্রদায় সাম্প্রতিক বছরগুলোতে প্রাণঘাতী হামলার শিকার হচ্ছে। কিন্তু আজ নিউজিল্যান্ডে যে মর্মান্তিক হামলা হয়েছে, তাকে একেবারেই বিরল।

এ বিষযে প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, একটি আধা স্বয়ংক্রীয় শর্টগান ও রাইফেল দিয়ে সাউথ আইল্যান্ডে আল নুর মসজিদে অন্তত ৫০টি গুলি ছোড়েন ২৮ বছর বয়সী এক শ্বেতাঙ্গা শ্রেষ্ঠত্ববাদী সন্ত্রাসী।-খবর মেইল অনলাইনের।