দেশে ফেরেই বড় দুঃসংবাদ পেল পাইলট অভিনন্দন

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারতনিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় দেশটির আধাসামরিক বাহিনীর গাড়িবহরে হামলায় অন্তত ৪৪ সেনা নিহত হয়। আর এর জের ধরে পাল্টাপাল্টি হামলায় উত্তপ্ত ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত। ভারতীয় বিমান বাহিনী পাকিস্তানের আকাশসীমায় বিমান ঢুকে পরায় দুটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান ভূপাতিত ও এক পাইলটকে আটক করে পাকিস্তান।

৬০ ঘণ্টা বন্দি থাকার পর পাকিস্তানের হেফাজতে থাকা ভারতীয় বিমানবাহিনীর উইং কমান্ডার অভিনন্দন ভার্থাম্যান ভারতে ফিরেছেন। আর দেশে ফিরে তার প্রথম কথা ছিল, নিজ দেশে ফিরতে পেরে ভালো লেগেছে।

শুক্রবার (১ মার্চ) দিবাগত রাত ৯টা ২৫ মিনিটের দিকে ভারত-পাকিস্তান আন্তর্জাতিক সীমান্তের আট্টারি-ওয়াঘা সুসংহত চেক পোস্ট (আইসিপি) দিয়ে ভারতের মাটিতে পা রাখেন অভিনন্দন।

তার আগমনে দেশজুড়ে উৎসবের আবহ বিরাজ করছে। অভিনন্দনকে স্বাগত জানাতে ওয়াঘা সীমান্তে ভিড় জমিয়েছেন অসংখ্য মানুষ। দেশে পা রাখার পরেই তাকে স্বাগত জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

এদিকে, দেশে ফিরেই বড় দুঃসংবাদ পেলে পাইলট অভিনন্দন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতীয় বিমানবাহিনীর এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘ডিব্রিফিং’ ও শারীরিক পরীক্ষায় অভিনন্দন উত্তীর্ণ না হতে পারলে ভারতীয় বিমানবাহিনীর হয়ে কোনো অপারেশনে যেতে পারবেন না অভিনন্দন। তাকে আর কোনো যুদ্ধবিমানে উঠতে দেয়া হবে না।

তবে বিমান না চালালেও বিমানবাহিনীর সাধারণ কোনো কাজে নিযুক্ত করা হতে পারে অভিনন্দনকে।