ফের পাকিস্তানে হামলার হুঁশিয়ারি

সাম্প্রতি কাশ্মীরের পুলওয়ামাতে হামলার জবাবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর পাল্টা হামলায় দেশ দুইটির মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এদিকে পাকিস্তানের উপর সন্ত্রাসীদের ঘাঁটিকে লক্ষ্য করে ভারতের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর হামলা প্রতিনিয়ত চলবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ভারত।

তাছাড়া পাকিস্তান যতদিন সন্ত্রীসীদের আশ্রয় দেবে ততদিন সেই সন্ত্রাসীদের লক্ষ্য করে হামলা চালানো হবে। পাক-ভারত উত্তেজনার মধ্যে এই প্রথবারের মতো সামরিক বাহিনী আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এমন হুঁশিয়ারি দিল। সেসময় পাইলট অভিনন্দন বর্তমানকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানানো হয়।

এর আগে গত মঙ্গলবার ভারতীয় বিমান বাহিনী পাকিস্তানের আকাশসীমায় ঢুকে বিমান হামলা চালালে পরদিন সকালে ভারতীয় যুদ্ধবিমান ভূপাতিত ও এক পাইলটকে আটক করে পাকিস্তান। এদিকে পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি চরম এ উত্তেজনার প্রেক্ষাপটে বলেন, ‘উত্তেজনা নিরসনে ভূমিকা রাখলে আমরা ভারতীয় পাইলটকে হস্তান্তর করতে প্রস্তুত।’

অন্যদিকে ভারতীয় বিমান বাহিনীর এয়ার মার্শাল আর জি কে কাপুর বলেন, ‘আমরা খুবই খুশি যে অভিনন্দন মুক্তি পাচ্ছেন। আমরা তার অপেক্ষায় আছি।’ তাছাড়া কর্মকর্তারা আরও জানান, পাকিস্তানের যেকোনও পদক্ষেপের জন্য তারা প্রস্তুত আছেন।

এদিকে নৌবাহিনীর রিয়ার অ্যাডরিাল ডিএস গুজরাল বলেন, ‘আমরা পাকিস্তানে যেকোনও পদক্ষেপের জন্য প্রস্তুত এবং ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যও প্রস্তুত। আমরা আমাদের জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাই।’

এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার ভারতীয় পাইলট অভিনন্দনকে মুক্তির ঘোষণা দেওয়ার পর এই সংবাদ সম্মেলন দুই ঘণ্টা পিছিয়ে দেওয়া হয়। সম্মেলন শুরুর পর এক সাংবাদিক প্রশ্ন করেন যে পাকিস্তানের এই পদক্ষেপকে শান্তির নিদর্শন হিসেবে দেখা হচ্ছে কি না। জবাবে তারা বলেন, ‘জেনেভা কনভেনশনের আওতায় পাকিস্তানি পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে একে।’