বিতর্কিত সেই আউট নিয়ে মুখ খুললেন আইপিএল চেয়ারম্যান

গতকাল ২৫ মার্চ সোমবার আইপিএলে লড়াই ছিল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব বনাম রাজস্থান রয়্যালসের। আর এই ম্যাচে ঘটল এক লজ্জাজনক ঘটনা। যা নিয়ে ক্রিকেট পাড়ায় বইছে সমালোচনার ঝড়। একজন জাতীয় দলের ক্রিকেটার হিসেবে কিভাবে এই নিচু কাজটি করলেন। সবার মুখে ছি…ছি অশ্বিন। এটা যে শুধু পাড়ার ক্রিকেটার অথবা চায়ের দোকেন আলোচনায় নয় সমালোচনা চলছে বিশ্বব্যাপী।

গতকাল ম্যাচের ইনিংসের ১৩তম ওভারে নন স্ট্রাইক প্রান্তে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। অশ্বিন বল করার আগেই ক্রিজ ছেড়ে দেন এ ব্যাটসম্যান। পেছনে ফিরে দেখেন স্ট্যাম্প ভেঙে দিয়েছেন বোলার। ঘটনার আকস্মিকতায় কিছুটা অবাক হলেও নিয়ম মেনে সাজঘরে ফেরেন বাটলার। তার আউটের পরই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে রাজস্থান। শেষ পর্যন্ত হেরে এর খেসারত গুনতে হয়।

এ সময় টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, বল হাত থেকে ছোড়ার আগ মুহূর্তেও ক্রিজে ছিলেন বাটলার। অশ্বিন কিছুটা অপেক্ষায় করায় ক্রিজ ছেড়ে সামনের দিকে এগিয়ে যান তিনি। এরপরই বল দিয়ে স্ট্যাম্পের বেল ফেলেন বোলার। প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে কি ইচ্ছা করেই বাটলারকে ‘মানকাডের’ ফাঁদে ফেলেছেন অশ্বিন?

কিন্তু তা মানতে নারাজ অশ্বিন, এটা আপনাআপনিই হয়ে গেছে। আগে থেকে পরিকল্পনা ছিল না। আমি ক্রিকেটের নিয়মের বাইরে কিছু করিনি। নিয়মের বাইরে না গেলে সেটা ক্রিকেটের চেতনা নষ্ট করে কীভাবে? উল্টো প্রশ্ন ছুড়ে দেন তিনি। জোর দিয়ে বলেন, এ আউট আইসিসির নিয়মেই আছে।

এদিকে মানকাড আউট নিয়ে বিতর্ক আগেও উঠেছে। তবে এবার এমন আউটের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় অশ্বিনকে রীতিমতো ধুয়ে দিচ্ছেন সাবেক ক্রিকেটারসহ সংশ্লিষ্টরা।

অবশেষে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক রবিচন্দ্রন অশ্বিনের কাণ্ডে মুখ খুললেন আইপিএল চেয়ারম্যান রাজিব শুক্লা। এ ব্যাপারে আইপিএল চেয়ারম্যান নিজের অফিসিয়াল টুইটারে লেখেন, ‘আমার স্পষ্ট মনে আছে, দুই দলের অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি-বিরাট কোহলি এবং ম্যাচ রেফারিদের সঙ্গে একটি সভা হয়েছিল।’

‘আইপিএল চেয়ারম্যান হিসেবে সেখানে আমিও উপস্থিত ছিলাম। সেই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, যদি কোনও ব্যাটসম্যান বোলারের বল করার আগে ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে যান তাহলে সৌজন্যের খাতিরে রান আউট করা হবে না।’