বিয়ের পিঁড়িতে অভিনেত্রী মিথিলা, পাত্র কলকাতার

কলকাতার সৃজিত মুখার্জি এবং বাংলাদেশর জনপ্রিয় অভিনেত্রী রফিয়াত রসিদ মিথিলার সম্পর্ক শুধুমাত্র শ্যুটিং ফ্লোরেই আটকে নেই, তা আঁচ করা যায়। মিথিলা শহরে পা রাখার পর পরিচালক তাঁকে শহর ঘুরে দেখাচ্ছেন বলে খবর প্রচার। এদিকে পরিচালক ঘনিষ্ঠ মহলে বলেছেন আগামী বছরের বিয়ের পিঁড়িতে বাঁধা পড়ার কথা ভাবছেন তিনি। সব মিলিয়ে বেশ চর্চার বিষয়ে পরিনত হয়েছে সৃজিত-মিথিলার সম্পর্ক! তাই দু’য়ে-দু’য়ে চার করলে জল্পনা আরও বাড়ছে। খবর এই সময়।

এই সময়ে খরবে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের আরেক নায়িকা জয়া এহসানের সঙ্গেও পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল, সে কথা সকলেরই জানা। এখন অর্ণবের নতুন গান আসার অপেক্ষা। এটাও দেখার অপেক্ষা, সৃজিতের সঙ্গে মিথিলার ইনিংস কতটা লম্বা হয়।

Advertisement

এদিকে, পশ্চিম বঙ্গের ‘এলিজেবল ব্যাচেলর’ বলা হয় ‘অটোগ্রাফ’ খ্যাত নির্মাতা সৃজিত মুখার্জিকে শনিবার রাতে কলকাতার রাজারহাটে একটি ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য ‘রহস্যময়’ সেই নারীর সঙ্গে হাঁটছিলেন। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া।

টাইমস অব ইন্ডিয়া প্রতিবেদনে বলা হয়, দুজনের সম্পর্ক বেশ সাবলীল মনে হয়েছে। একে অপরের সঙ্গ উপভোগ করছিলেন তারা। সূত্র জানিয়েছে, সেই নারী বাংলাদেশের একজন সংগীত শিল্পী, অভিনেত্রী এবং এনজিও কর্মী। যার নাম রাফায়াত রশিদ মিথিলা!

প্রতিবেদনে আর ও বলা হয়, গত কয়েক মাস আগে ফেসবুকের মাধ্যমে সৃজিত এবং মিথিলার যোগাযোগ হয়। এরপর তাদের মধ্যে যোগাযোগ চলতে থাকে। নিজেদের মাঝে অনেক মিল খুঁজে পাওয়ায় ভালো বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। দুজনেই আবার কণ্ঠশিল্পী শাহানা বাজপেয়ীর ভালো বন্ধু।

এ বিষয়ে সৃজিত বলেন, ‘মিথিলা একটি মিউজিক ভিডিওর শুটিং এর জন্য কলকাতায় এসেছিল। গানটি কণ্ঠশিল্পী অর্ণবের। মিথিলা অর্ণবের কাজিন। ভিডিওটি পরিচালনা করেছেন একলব্য চৌধুরী। আমার প্রোডাকশন হাউজের তৈরি। মিথিলা যেহেতু এসেছে, আমি তাকে শহরটা একটু ঘুরিয়ে দেখাতে চেয়েছিলাম।’

তবে প্রেমের বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, ‘এই ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে পারবো না।’

তবে এই ব্যাপারে সৃজিতের সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বারে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাড়া দেননি। এছাড়া অভিনেত্রী মিথিলা কলকাতা থেকে আজ দেশে ফিরেছেন বলে জানা গেছে।