রাশেদকে গুলি করে মেরে ফেলার হুমকি!

কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা মুহাম্মদ রাশেদ খান পুনরায় কোন আন্দোলনে নেতৃত্ব দিলে তাকে গুলি করে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়েছে। তার গ্রামের বাড়ি গিয়ে দুর্বৃত্তরা এ হুমকি দেয়। গতকাল ১৩ মার্চ বুধবার রাতে তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে এ কথা জানান।

এদিকে ডাকসু নির্বাচনে প্রায় ছয় হাজার ভোটের ব্যবধানে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর কাছে পরাজিত হয়েছেন রাশেদ। এরপর থেকেই ছাত্র ইউনিয়নসহ বামপন্থী ছাত্র সংগঠনগুলো ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সঙ্গে ভোটের ফল বাতিলের দাবিতে আন্দোলন করছেন রাশেদ।

এদিকে ছেলেকে গুলি করে মেরে ফেলার হুমকি শুনে রাশেদের মা সালেহা বেগম হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। বর্তমানে তিনি ঝিনাইদহ ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

গতকাল বুধবার বিকেলে দুই ব্যক্তি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার চরমুরাড়ীদহ গ্রামে রাশেদের বাড়িতে গিয়ে এই হুমকি দেন বলে গণমাধ্যমকে জানান রাশেদ খান। তবে হুমকিদাতাদের পরিচয় জানা যায়নি।

এ সময় রাশেদ আরও বলেন, ‘এর আগেও আমাকে এমন হুমকি দেওয়া হয়েছে।’

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান খান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমার কাছে কোন তথ্য নেই। রাশেদের পরিবারের পক্ষ থেকেও কিছু জানায়নি পুলিশকে।’