সুনামগঞ্জে জীবিত গরু চিবিয়ে খেল যুবক! গ্রাম জুড়ে আতঙ্ক

সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নে জীবিত গরু ছুরি বা কোন প্রকার যন্ত্রপাতি ছাড়াই জবাই করে খেয়ে ফেলেছে এক যুবক। গরুর মাংস খাওয়া নিয়ে তোলপাড় চলছে। পুরো গ্রামজুড়ে চলছে কানাঘুষা। তবে প্রকৃত কারণ খুঁজে দেখছেন না কেউ। আবার কেউ কেউ বলছেন, এটি অসম্ভব ব্যাপার। ওই যুবকের নাম জিয়াউর (২৭)। সে হাতিয়া শামনগরের এসাই মিয়ার ছেলে।

ঘটনাটি ঘটেছে দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের হাতিয়া গ্রামে।

বিষয়টি নিয়ে লিটন মিয়া এক ব্যক্তি জানান, বেশ কিছুদিন ধরে জিয়াউর এটা খাবে, সেটা খাবে, সুন্দর মানুষ খাবে বলে আসছে। সেই মোতাবেক সোমবার রাতে সে জমির হোসেনের বাড়ি থেকে একটি গরু বের করে রাতে হাওরে নিয়ে যায়। তারপর তাকে নাকি রাতে বাড়ির লোকজন দেখে গরুর একটা রান দাত দিয়ে ছিড়ে খেতে খেতে।

তিনি বলেন, বাড়ির লোকজন তাকে ধরে জিজ্ঞেস করলে সে বলে হাওর থেকে গরুর রান এনে খাচ্ছে, গরুর বাকি গোশত কোথায় বললে সে বাড়ীর এক কোণায় রেখে এসেছে। সেখানে গিয়ে দেখা যায় ৩ টা রান পড়ে আছে ঘাসের উপরে। তারপর তাকে ধরে সবাই আটকে রাখে, তখন সে চিৎকার চেঁচামেচি করে, বলে আমার পেট ভরেনি আমি আরো খাব।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে গ্রামে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। সবাই ভাবছেন জিয়াউরের উপর জ্বীন-ভূতের আছড় করেছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার জিয়াউরকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও ৬ মার্চ তাকে বাড়ি ফিরিয়ে আনার প্রস্তুতি নেয় তার পরিবার।

বিষয়টি নিয়ে ওই এলাকার এক ইউপি সদস্য বলেন, জিয়াউর মানসিকভাবে অসুস্থ। হয়তো সে কোনোভাবে গরুটি মেরে ফেলে তার মাংস খেয়েছে। তার মাংস ভক্ষনের খবরটি প্রচার হলে গ্রামে শুরু হয়েছে অন্যরকম আলোচনা। তিনি গ্রামবাসিকে এরকম ধ্যান ধারণা পরিত্যাগ করার আহ্বান জানান।