৩৯ বছর বয়সে ৩৯ ছক্কার রেকর্ড গড়লে গেইল

ওয়েস্ট ইন্ডিজের তারকা ক্রিকেটার ক্রিস গেইলের চল্লিশ ছুঁইছুঁই। কদিন আগেও অনেকেই তাকে বাতিলের খাতায় ফেলে দিয়েছিলেন। অথচ সেই গেইলের ব্যাটিং তাণ্ডবে পঞ্চম তথা শেষ ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডকে সাত উইকেটে হারিয়েছে তার দল । গতকাল ২ মার্চ শনিবার সেন্ট লুসিয়ায় ইংলিশদের ১১৩ রানে গুটিয়ে দেওয়ার পর ২২৭ বল হাতে রেখেই একতরফা জয় তুলে নিয়েছে ক্যারিবীয়রা।

এদিনের মতো এতো অব্যবহৃত বলের ব্যবধানে আগে কখনো হারেনি ইংল্যান্ড। তবে বলের হিসেবে ক্যারিবীয়দের এটা তৃতীয় দ্রুততম জয়। ক্যারিবীয়দের এই দ্রুতগামী জয়ের নায়ক গেইল। গতকাল ইংলিশদের বিপক্ষে ২৭ বলে ৭৭ রানের মহাপ্রলয় উঠেছে ক্যারিবীয় দৈত্যের ব্যাটে। তাছাড়া এই ইনিংস খেলার পথে ১৯ বলে হাফসেঞ্চুরি ছুঁয়েছেন গেইল। যা ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে কোন ব্যাটসম্যানের দ্রুততম অর্ধশতকের রেকর্ড।

এই ম্যাচে ইংলিশদের বিপক্ষে পাঁচটি চার ও নয়টি ছক্কা মেরেছেন গেইল। এমন তাণ্ডবের পরও ম্যাচের পার্শ্বনায়কের চরিত্র পেলেন বাঁ-হাতি ওপেনার!

এই জয়ে পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ ২-২ ড্রয়ে শেষ করল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বৃষ্টির কারণে এক ম্যাচ পরিতেক্ত হয়ে যায়। এদিকে ইংলিশদের ধসিয়ে দেওয়া পেসার টমাস হয়েছেন ম্যাচ সেরা। ব্যাট হাতে চার-ছক্কা ও রানের বন্য বইয়ে দেওয়া গেইল অবধারিতভাবেই হয়েছেন সিরিজ সেরা।

এদিকে পাঁচ ম্যাচের মধ্যে চারটিতে মেরেছেন রেকর্ড ৩৯ ছক্কা। আর পুরো ইংল্যান্ড দল মিলেই মেরেছে তারচেয়ে দুটি কম ছক্কা। গেইলের পুরো সিরিজে প্রথম ম্যাচে ১৩৫ (১২৯) দ্বিতীয় ম্যাচে ৫০ (৬৩) চতুর্থ ম্যাচে ১৬২ (৯৭) পঞ্চম ম্যাচ ৭৭ (২৭)। ৪ ম্যাচে ৪২৪ রান, গড় ১০৬,দুই ফিফটি আর দুই সেঞ্চুরি। আর চার ইনিংস ব্যাট করে এত রান করার নজির আর কারো নেই।

এর আগে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ফখর জামানের জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫১৫ রানের রেকর্ড করেন। তবে বৃষ্টিতে এক ম্যাচ ভেস্তে না গেলে হয়ত এই রেকর্ড ভেঙেই ফেলতেন গেইল।