গোটা বাংলাদেশ নুসরাতে পরিণত হয়েছে: আলাল

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, নুসরাত বাংলাদেশের একটি খণ্ডচিত্র মাত্র। গোটা বাংলাদেশই নুশরাতে পরিণত হয়েছে। সারা বাংলাদেশ আজ ধর্ষিত, অগ্নিদগ্ধ। এ সময় তিনি ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসা শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফির হত্যাকারীদের শাস্তির দাবি জানান।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) জাতীয় প্রেসক্লাবের ‘জিয়া আদর্শ একাডেমি’র উদ্যোগে বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও সকল রাজবন্দির মুক্তির দাবিতে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, সরকার যখন শাসক হয়ে যায় তখনি দুঃশাসন মাথাচাড়া দেয়। বাংলাদেশে বর্তমানে কোনো সরকার নেই শাসক আছে। আর সেই শাসকের ক্যাপ্টেন হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

যুবদলের সাবেক এ সভাপতি বলেন, নুসরাত চলে গেছে, তাকে জিজ্ঞাসাবাদ যে ওসি ভিডিও করলো। সেই ওসি ভিডিওটি আবার প্রকাশ করলো কীভাবে? তার বিরুদ্ধে প্রথম সাইবার সিকিউরিটি একটি মামলা করে তাকে রিমান্ডে আনা উচিত। কিন্তু সেটা এই আওয়ামী শাসকরা করবে না। কারণ এরা তো সরকার না এরা হচ্ছে শাসক।

খালেদা জিয়ার প্যারোল নিয়ে মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, প্যারোলটা প্রসব করেছে আওয়ামী লীগ এবং এটা লালন পালন করে শিশুর মতো বড়ও করেছে আওয়ামী লীগ। এক মন্ত্রী বলে খালেদা জিয়ার পরিবার থেকে সুপারিশ করলে প্যারোলে মুক্তি দেয়া হবে। আরেক মন্ত্রী বলে প্যারোলের কোন প্রশ্নই আসে না। আইনগত ভাবে মুক্তি নিতে হবে। নিজেরা পক্ষ-বিপক্ষ হয়ে একটি নাটক তৈরি করেছেন। এ নাটকের মধ্য দিয়ে যে অবস্থা তৈরি হয়েছে। সেই নাটক নিয়ে আমরা যেন গুরুত্ব দিয়ে আলোচনা না করি।

তিনি বলেন, শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তান আমলে প্যারোলে মুক্তি নিয়ে ছিল। তার আগে রাজপথে অনেক রক্ত ঝরেছিল। তখন শেখ মুজিবের বয়স ছিল ৪৫ থেকে ৪৬ বছর। আর এখন বেগম খালেদা জিয়ার বয়স ৭৫, এসব বিবেচনা করতে হবে।