‘ছিন্ন-ভিন্ন দেহ পড়ে আছে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে’

র‌্যাবের এডিজি (অপারেশন) কর্নেল জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, ‘বিস্ফোরণে জঙ্গিদের ছিন্ন-ভিন্ন দেহ ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ে আছে। বম্ব ডিসপোজাল ইউনিট সুইপিংকালে তা দেখতে পেয়েছে। কমপক্ষে একজনের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা গেছে। তবে নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে।’

জঙ্গি আস্তানা খুব কাছ থেকে পরিদর্শন করে ফিরে তিনি গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

কর্নেল জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ভেতরে অবিস্ফোরিত বোমা ও আইইডি (ইমপ্রোভাইসড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস) দেখা গেছে। সেগুলো নিষ্ক্রিয় করার চেষ্টা চলছে। বিস্ফোরণে টিনসেড ভবনের টিনের চাল ও বেড়া উড়ে গেছে। টিনসেড ভবনটির পেছনে খাল। খালপাড়ে ঝোপজঙ্গল। সেখানেও উড়ে যাওয়া টিনের টুকরো, শরীরের অঙ্গ দেখা গেছে।

বিষয়টি নিয়ে র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার (এসপি) মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, বাড়ির মালিক আব্দুল ওহাবের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তিনি এখন ঢাকার বাইরে। তিনি জানিয়েছেন, দেড়মাস আগে বাড়িটি ভাড়া নেয় দুইজন ভ্যান চালক। এ মাসে তাদের ছেড়ে দেয়ার কথা ছিল। তারা ভ্যান চালানোর আড়ালে জঙ্গি কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন কি না তা খতিয়ে দেখা হবে।

এদিকে, ঘিরে রাখা সন্দেহজনক জঙ্গি আস্তানায় বিস্ফোরণে কমপক্ষে দুজন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে র‌্যাব। এর আগে মূল অভিযান শুরুর আগেই বাড়ির মালিক ও কেয়ারটেকারসহ চারজনকে আটক করেছে র‌্যাব।

আজ ২৯ এপ্রিল সোমবার সকাল ১০টার দিকে বাড়িটির ভেতর র‌্যাবের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল ও ডগ স্কোয়াড প্রবেশ করেছে। টিনশেডের বাড়িটি থেকে বিস্ফোরণের হালকা ধোঁয়া বেরোচ্ছে এখনো।