নুসরাতকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার দায় স্বীকার করল মামলার প্রধান দুই আসামি

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিচ্ছে নুরউদ্দিন ও শামীম। এই দুইজন হল মামলার অন্যতম প্রধান দুই আসামি।

আজ ১৪ এপ্রিল রবিবার বিকেলে এই দুই আসামিকে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম জাকির হোসাইনের আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় আদালতে তাঁরা দায় স্বীকার করেন এবং পর্যায়ক্রমে দুই আসামি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেবে বলে জানান গেছে।

এর আগে গত ৬ শনিবার এপ্রিল সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে সকাল ৯টার দিকে ওই ছাত্রী যায়, আলিম পর্যায়ের আরবি প্রথম পত্রের পরীক্ষা দিতে। পরে তাকে কৌশলে পাশের ভবনের ছাদে ডেকে নেওয়া হয়।

এ সময় সেখানে ৪ থেকে ৫ জন বোরকা পরিহিত ব্যক্তি ওই ছাত্রীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে তার শরীরের ৮৫ শতাংশ পুড়ে যায়। পরে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে তার স্বজনরা প্রথমে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

এরপর চিকিৎসকরা তাকে ফেনী সদর হাসপাতালে পাঠান। সেখান থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় ৮ জনকে এজাহারভূক্ত ও অজ্ঞাত আসামি দেখিয়ে মামলা করে পরিবার।