বিএনপির অনেকেই আত্মহত্যা করছেন: মির্জা ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগকে ভালোভাবে চেনার আমাদের আর কিছু নেই। আমরা আওয়ামী লীগকে খুব ভালো করেই চিনি। আমরা আমাদের সমস্ত অধিকার দিয়ে চিনেছি। জীবন দিয়ে চিনেছি। আমরা জানি আওয়ামী লীগ কী জিনিস! তাদের এই আচরণ থেকে জনগণ মুক্তি পাবে।

রবিবার (২৮ এপ্রিল) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) একাংশের বার্ষিক কাউন্সিলে এ নিয়ে কথা বলেন তিনি।

দলে এবং দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের অনেকের মানবেতর জীবন যাপনের প্রসঙ্গ তুলে ধরেছেন নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘ন্যায়ের জয় অবশ্যই হবে। অন্যায় পরাজিত হবে। সত্যের জয় হবেই। আর বাংলাদেশের যে রাজনৈতিক ইতিহাস এবং জনগণের সংগ্রামের যে ইতিহাস, সেটা কখনো ব্যর্থ হয়নি। জয়ী আমরা হবোই।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমাদের বহু ছেলে আছেন যারা ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল বা বিএনপি করেন। তারা ঢাকায় রিকশা চালাচ্ছেন, হকারের কাজ করছেন এবং অনেকে কাজ না পেয়ে আত্মহত্যা করছেন। এটা বাস্তবতা।

মির্জা ফখরুল বলেন, সাংবাদিকতা নিঃসন্দেহে একটি মহান পেশা। তাই আপনাদেরও ভাবতে হবে, দেশে রাজনীতি কেমন চলছে আর বিশ্বের রাজনীতিতে কী ঘটছে। অন্যান্য জাতি কী অবস্থার মধ্যে আছে, আমরা কী অবস্থার মধ্যে আছি। আপনাদেরকে এসব বিষয়ে ভাবতে হবে। সাংবাদিকতার স্বাধীনতা, মানুষের স্বাধীনতা, জাতির স্বাধীনতা একটি অপরটির সঙ্গে জড়িত।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে একটা গভীর সমস্যা বিরাজ করছে। এই সংকট সৃষ্টি হয়েছে জাতীয় জীবনে, সমাজ জীবনে, রাষ্ট্রীয় এবং আমাদের ব্যাক্তি জীবনেও। আমি খুব ব্যক্তিগতভাবে জানি, আপনাদের অনেক সংবাদকর্মীর কাজ নেই। আমি ব্যক্তিগতভাবে জানি যে অনেক সংবাদকর্মী অত্যন্ত আর্থিক কষ্টে আছেন। এটাই হচ্ছে এখনকার রাষ্ট্রব্যবস্থা ও রাজনীতির পরিণতি।