বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচকে যেভাবে দেখছেন শোয়েব মালিক

আসন্ন বিশ্বকাপ ক্রিকেট কড়া নাড়ছে দরজার কাছে। ইংল্যান্ডের মাটিতে আগামী ৩০ মে থেকে শুরু হবে ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর। ইতোমধ্যে এই আসরটিকে কেন্দ্র করে নিজেদের বিশ্বকাপ স্কোয়াড দল ঘোষণা করেছে দলগুলো। সব দলে তাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। তাদের মধ্যে অন্যতম দল হল পাকিস্তান।

আর বিশ্বকাপে পাক-ভারত ম্যাচ মানে টানটান উত্তেজনা। যে কারণে ক্রিকেট ইতিহাসে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচকে ‘যুদ্ধ’ হিসেবে দেখা হয়। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচকে ‘যুদ্ধ’ হিসেবে দেখা হলে দুই দেশের ম্যাচকে যুদ্ধ বলতে নারাজ পাকিস্তানের অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক।

তিনি বলেন, আমার কাছে ‘যুদ্ধ’ শব্দটাকে বেশ অদ্ভুত মনে হয়। আমার মনে হয় না এমন শব্দ ব্যবহার করা উচিত। বিশেষ করে খেলাধুলায়।

পাক-ভারত ম্যাচকে যুদ্ধ নয়, বরং শান্তি ও সম্প্রীতি হিসেবে ম্যাচটিকে দেখা উচিত বলে মনে করেন তিনি।

মালিক বলেন, সব কিছু ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখলে অনেক কঠিন বিষয় সহজ হয়ে যায়। সেটি ক্রিকেট হোক বা অন্য যেকোনো খেলাতেই। এটি মানুষকে মৈত্রীর বন্ধনে বাঁধবে।

পাকিস্তানের অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। এর পর থেকে পাক-ভারত ম্যাচে মালিকের ওপর বিশেষ নজর থাকে দুই দেশের দর্শকদের।

রাজনৈতিক বৈরিতার কারণে এখন দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ হয় না। শুধু বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে দেখা হয় তাদের। আর আসন্ন বিশ্বকাপে দেখা যাবে সেই মহারণ (১৬ জুন)। অধিকাংশই একে যুদ্ধ হিসেবে দেখছেন। আসন্ন ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ স্কোয়াডে রয়েছেন তিনি। আর এই আসরের পর অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন মালিক। পাকিস্তানের হয়ে ২০০৭, ২০১১ ও ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে দলে ছিলেন ৩৭ বছর বয়সী এ ক্রিকেটার।