মাত্র দুই ঘণ্টা সময় পেয়েছে বিজিএমইএ

রাজধানীর হাতিরঝিল লেকে অবৈধভাবে নির্মিত বহুতল বিজিএমইএ ভবন অবশেষে ভাঙা হচ্ছে। ভবনটির গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি, টেলিফোন লাইনসহ সব ইউটিলিটি সার্ভিস সংযোগ বিচ্ছিন্নের মাধ্যমে এ কাজ হবে।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) আনুষ্ঠানিকভাবে ১৬ তলা ভবনটি ভাঙার কাজ শুরু করবে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)।

Advertisement

রাজউক সূত্র জানায়, আজ মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে ১৬ তলা ভবনটি ভাঙার কাজ শুরু করবে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। তাই সকাল ৯টায় বিজিএমইএ ভবনের সামনে রাজউক কর্মকর্তারাসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্যরা অবস্থান নিয়েছেন। পাশাপাশি ভবন ভাঙার গাড়ি প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

জানায় গেছে, পুরো ভবনটি ভাঙতে একদিন সময় লাগবে।

বিষয়টি নিয়ে রাজউকের এক কর্মকর্তারা জানান, ভবনটি ভাঙতে রাজউক সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে। এর মধ্যে ভবন থেকে মালামাল সরাতে অফিস মালিকদের স্বল্প সময় দেওয়া হতে পারে। এরপরই মূল ভবন ভাঙার কাজ শুরু হবে।

এদিকে, বিজিএমইএর বহুতল থেকে মালামাল সরিতে নিতে দুই ঘন্টা সময় দেয়া হয়েছে। এরপরই শুরু হবে ভবন ভাঙার কাজ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজউক পরিচালক (প্রশাসন) খন্দকার অলিউর রহমান।

তিনি জানান, বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজে সার্বিকভাবে প্রস্তুত আছে রাজউক। ভবন ভাঙার জন্য বুলডুজারসহ অন্যান্য যন্ত্রাদি ভবনের সামনে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এই ভবনে ব্যাংকসহ অন্যান্য অফিস আছে। তারা মামলাল সরিয়ে নিতে দুই ঘন্টা সময় চেয়েছেন, আমরা সেই সময়টুকু তাদের দিয়েছি।

খন্দকার অলিউর রহমান জানান, ব্যাংকের ভল্টে টাকাসহ অফিসের অন্য মালামাল তারা (বিভিন্ন অফিস সংশ্লিষ্টরা) সরিয়ে নেয়ার কাজ করছে।তারা মালামাল সরিয়ে নেয়ার পর আমরা ভাঙার কাজ শুরু করব।