স্ত্রীকে হত্যা করে লাশ দেশের বাড়িতে নিয়ে গেল স্বামী!

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরের জলিরপাড় ইউপির তালবাড়ী গ্রামে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যা করে স্বামী লাশ নিয়ে দেশের বাড়িতে হাজির হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) সকালে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, গত দুই বছর আগে মুকসুদপুর উপজেলার তালবাড়ী গ্রামের সুকুমার মণ্ডলের ছেলে সঞ্চয় মণ্ডলের সঙ্গে খুলনা জেলার সদর উপজেলার তুতপাড়া এলাকার আশিষ বিশ্বাসের মেয়ে প্রিয়ার বিয়ে হয়। আর বিয়ের পাঁচ মাস পর নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানার দাউদপুর এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন এ দম্পতি। এরপর স্বামী সঞ্চয় মণ্ডল প্রায়ই নেশা করে বাসায় আসতেন। এরই জের ধরে বুধবার রাতে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়ার একপর্যায়ে স্বামী সঞ্চয় শ্বাসরোধ করে তার স্ত্রীকে হত্যা করে গাড়ি ভাড়া নিজেই দেশের বাড়িতে নিয়ে আসেন।

বিষয়টি নিয়ে নিহতের মা বেলেকা বিশ্বাস জানান, বুধবার রাত ৮টার দিকে আমার মেয়ে প্রিয়া মোবাইলে আমি আর বাঁচব না বলে শেষ কথা বলে। এ সময় আমার মেয়ের হাত থেকে মোবাইল কেড়ে নেয় জামাই সঞ্চয় মণ্ডল। এরপর তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। বৃহস্পতিবার আমার মেয়ের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে তার শ্বশুরবাড়ি আসি। আমি এ হত্যার বিচার চাই।

এবিষয়ে নিহতের মামা পূর্ন শিকদার জানান, নেশাগ্রস্ত ভাগ্নিজামাই সঞ্চয় নিজেই তার স্ত্রীকে হত্যা করে গাড়ি ভাড়া করে দেশের বাড়ি নিয়ে আসে। এ হত্যার বিচার চাই।

তবে সঞ্চয় মণ্ডলের দাবি, আমি আমার স্ত্রীকে হত্যা করিনি। সে আত্মহত্যা করেছে।

বিষয়টি নিয়ে মুকসুদপুরের সিন্দিয়াঘাট পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মহিদুল ইসলাম বলেন, মৃত্যুর অভিযোগ পেয়ে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।