আমি আমার ফিউচার প্ল্যান করে ফেলছি: দীঘি

এবার মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় ফলাফলে এবার ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে, যাদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে এসএসসিতে পাসের হার ৮২ দশমিক ৮০ শতাংশ, মাদরাসা বোর্ডে দাখিলে পাসের হার ৮৩ দশমিক ০৩ ও কারিগরি বোর্ডে ৭২ দশমিক ২৩ শতাংশ।

এদিকে, এবছর সেকেন্ডারি স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় অভিনেত্রী দীঘি। সোমবার দুপুরে ফলাফল ঘোষণার পর খবরটি জানিয়েছেন তার বাবা অভিনেতা সুব্রত বড়ুয়া।

দীঘি ‘এ-মাইনাস’ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন। তার রেজাল্ট আশাব্যঞ্জক হয়নি। সে জিপিএ-৩.৬১ পেয়েছে। তারপরও এতেই আমরা খুশি। সামনে ভালো কলেজে ভর্তির চেষ্টা থাকবে।

এ বিষয়ে দীঘির বাবা সুব্রত বলেন, দীঘি স্ট্যামফোর্ড স্কুল ও কলেজ থেকে এবছর এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিলো। তার রেজাল্ট আশাব্যঞ্জক হয়নি। সে জিপিএ-৩.৬১ পেয়েছে। তারপরও এতেই আমরা খুশি। সামনে ভালো কলেজে ভর্তির চেষ্টা থাকবে।

চলচ্চিত্র পরিবারের সন্তান দীঘি ‘ময়না পাখিটা না, আমার নাম ধরে ডেকেছে…’ গ্রামীনফোনের এই একটি বিজ্ঞাপনে অভিনয় করে ব্যাপক সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন। এরপর কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘কাবুলিওয়ালা’ তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র। প্রথম চলচ্চিত্রে অভিনয় করেই ২০০৬ সালে ‘শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী’ হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন তিনি। এরপর দাদীমা, চাচ্চু, বাবা আমার বাবা, ১ টাকার বউ ও অবুঝ শিশুর মতো চলচ্চিত্র।

এদিকে, এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, নায়িকা হতে চাইলে এখনই হতে পারি। বাসায় এক শ’র ওপর চিত্রনাট্য রয়েছে। আমাকে ছবির অফার দেওয়া হয়েছে আব্বুর মাধ্যমে। আব্বু না করে দিয়েছে, তারপরও ডিরেক্টর, প্রডিউসার আংকেলরা একবার যেন স্ক্রিপ্ট পড়ি এ জন্য রেখে গিয়েছেন। আমি চিত্রনাট্য দেখেছিও কিছু। কিন্তু আমি ডিটারমাইন্ড, ইন্টার পাস করার আগে কোনো কাজ নয়। আমি আমার ফিউচার প্ল্যান করে ফেলছি। সেভাবেই এগোচ্ছি। আমার জন্য এখন সকলের দোয়া প্রয়োজন।

দীঘি ছাড়াও এবার ঢাকাই ছবির হালের অভিনেত্রী পূজা চেরি সেকেন্ডারি স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় অংশ নিয়ে কৃতিত্বের সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়েছেন। তিনি জিপিএ ৪.৩৩ পেয়েছেন।