দাম্পত্যে আকর্ষণ ধরে রাখতে যা করবেন

দাম্পত্য ধরে রাখা সম্ভব শারীরিক ও মানসিক আকর্ষণ। একটা জিনিস ভুলে গেলে চলবে না যে দাম্পত্য হচ্ছে চর্চা করার একটি বিষয়। কেবল ভালোবাসায় কাজ চলে না, চাই সুন্দর সম্পর্কের চর্চাও। যতই তুমুল প্রেম করে বিয়ে করেন না কেন, কিছু বছর পর দাম্পত্যে আকর্ষণ হারাবেই এবং এটা খুবই স্বাভাবিক একটা ব্যাপার।

দীর্ঘদিন একসাথে থাকা হলে শারীরিক আকর্ষণটা তো ধীরে ধীরে কমেই যায়, সাথে কম মানসিক আকর্ষণও। আর এই কারণেই একটা পর্যায়ে গিয়ে দাম্পত্য হয়ে দাঁড়ায় প্রেম ও যৌনতা বিহীন একটা বস্তু। এরপর ঝগড়া বাড়তে শুরু করে, সাথে বাড়ে অসুখী হওয়ার মাত্রা। আবার অনেকের ক্ষেত্রেই ব্যাপারটা গড়ায় পরকীয়া কিংবা দ্বিতীয় বিয়ে পর্যন্ত।

শুধু একটু চেষ্টা করলেই ব্যাপারগুলোকে এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব। জেনে নেনি কি কি করলে দাম্পত জীবন আকর্ষণীয় হবে:

দুজনের মাঝে অন্য কাউকেই নয়:

দাম্পত্য খুব ব্যক্তিগত একটি ব্যাপার, যেটা কেবল নিজেদের অনুভবের বিনিময়ে গড়ে ওঠে। সন্তান হোক বা পরিবারের অন্য কেউ, নিজেদের একান্ত ব্যক্তিগত দুনিয়ায় কাউকে প্রবেশ করতে দেবেন না। কিছু ব্যাপার কেবল নিজেদের মাঝেই রাখুন, সম্পর্ক হয়ে উঠবে সুন্দর।

ভালোবাসুন তার সাথে জড়িত সবাইকে:

যখন সঙ্গীর পরিবারের সঙ্গে আপনার ভালো সম্পর্ক থাকবে, দাম্পত্য আপনা আপনি হয়ে উঠবে মজবুত।

নিজের জন্য একটু সময়:

ভালোবাসা মানে সবসময় কাছে থাকা নয়, কখনো দূরে থাকাও। নিজের জন্য একটু সময় আলাদা করে রাখুন, তাঁকেও সুযোগ দিন একটু একলা সময় কাটাবার। দাম্পত্য এই একটু খানি দূরত্ব কাছে আসাকে আকর্ষণীয় করে রাখে।

প্রশংসা যেন কখনো বন্ধ না হয়:

কেউ আপনার প্রশংসা করলে কেমন লাগে? নিশ্চয়ই খুব ভালো! তাহলে আপনি কেন নিজের জীবনসঙ্গীর প্রশংসা করবেন না? প্রেম আর বিয়ের পার্থক্য এখানেই যে বিয়ের পর সঙ্গীর প্রশংসা করা ছেড়ে দেই আমরা। একটা সামান্য, দরকার হলে মিথ্যা প্রশংসাও যে সঙ্গীকে আপনার প্রতি কতটা দুর্বল করে তুলবে আপনি চিন্তাও করতে পারবেন না। অনেকেই মনে করেন আরেকজনের প্রশংসা করলে আপনি ছোট হয়ে যাবেন। কিন্তু সত্য এটাই যে প্রশংসা কোন ক্ষতি করে না, কেবল সম্পর্ক মজবুত করে।

নিজেকে সুন্দর রাখুন:

আমাদের দেশে এই ব্যাপারটা খুব বেশি দেখা যায় যে বিয়ের কিছু বছর পরই আর নিজেদের চেহারার দিকে মনযোগ দেইনা আমরা। বেশিরভাগ স্বামী-স্ত্রীই বিয়ের কিছু বছর না যেতে মুটিয়ে যান, স্টাইল কিংবা নিজেকে সুন্দর দেখাবার দিকে মনযোগ দেন না। এটা ভীষণ ভুল একটি কাজ। দেখতে সুন্দর লাগলে নিজের আত্মবিশ্বাস অটুট থাকে, একই সাথে মনও থাকে ভালো। আর অতি অবশ্যই সঙ্গীর চোখেও বজায় থাকে আপনার আকর্ষণ। নিজের জীবন সঙ্গীর চোখে নিজে সুন্দর রাখার চেষ্টা করতে কখনো ত্রুটি করবেন না।

ভালোবাসার প্রকাশ থাকুক সারা জীবন:

ছোট্ট উপহার, ভালোবাসি বলা, সবসময় সকল প্রয়োজনে পাশে থাকা ইত্যাদি ভালোবাসার প্রকাশ কিন্তু প্রতিদিন সম্পর্ককে মজবুত করে। তাই কখনো কার্পণ্য করবেন না ভালোবাসার প্রকাশে।

যৌনতায় আসুক বৈচিত্র্য:

যৌন জীবন আনন্দময় থাকলে দাম্পত্য সম্পর্ক স্বাভাবিকভাবেই অটুট থাকে। যৌনতা মানে একজনের আনন্দ নয়, বরং দুজনেই সমান সুখী হচ্ছেন না সে ব্যাপারে লক্ষ্য রাখা। নিজেদের পছন্দ-অপছন্দকে গুরুত্ব দিন, বৈচিত্র্য আনার মাধ্যমে দাম্পত্যকে করে তুলুন আনন্দময়।