নেট দুনিয়ায় ভাইরাল তারা দুজন

পোলিং অফিসার হিসেবে ডিউটি পড়েছিল দুই নারীর। আর সেই দুই নারীর ছই ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়তেই তা ভাইরাল হয়ে যায়। ফেসবুকে বন্ধু হওয়ার অনুরোধে সয়লাব, লোকসভা ভোটের বাজারে ‘ইন্টারনেট সেনসেশন’ হয়ে উঠেছেন দুই তরুণী পোলিং অফিসার।

একজনের পড়নে হলুদ শিফন শাড়ি, চোখে রোধ চশমা, হাতে ইভিএম। অন্যজনও ভোটের ডিউটিতে আছেন। নীল রঙের পোশাকের সাথে গলায় মানানসই নেকপিস।

এর মধ্যে হলুদ শাড়ি পড়া ৩২ বছর বয়সী রিনা জানিয়েছেন, বিয়ে হয়েছিল খুব অল্প বয়সেই। ছেলে এখন নবম শ্রেনীতে পড়ে। ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার সময় এক সহকর্মী ছবিটি তুলেছিল মজা করে। তা নিয়ে যে এত হৈ চৈ হয়ে যাবে বুঝতে পাড়িনি।

তিনি বলেন, লোকে যে আমাকে এত পছন্দ করছেন এটা উপভোগ করছি। নজরে পড়তে কার না ভালো লাগে? আমিও খুশি।

বে রিনা জানিয়েছেন তিনি সবচেয়ে বেশি মজা পেয়েছেন ছেলের কথায়। যখন এই ছবি ভাইরাল হয় তখন সে বন্ধুদের বলেছিল এটা আমার মা। তারা কেউ বিশ্বাসই করেনি। তাই ছেলে ধরেছে ওর বন্ধুদের ভিডিও কল দিতে হবে।

অন্য জনের নাম যোগেশ্বরী গোহিত। তার ছবি অবশ্য তুলেছিল সাংবাদিকরাই। সাংবাদিকরা তার সাথে কথা বলতে চেয়েছিল। কিন্তু ডিউটিতে আছেন বলে কথা বলেন নি। কিন্তু সেখানে তার তোলা ছবিই ভাইরাল হয়ে যায়।