বিশ্বকাপে অভিষেক হচ্ছে শচীনের

আজ ৩০ মে, স্বাগতিক ইংল্যান্ড বনাম দক্ষিণ আফ্রিকার উদ্বোধনী ম্যাচে কম্যান্ট্রি বক্সে বসবেন তিনি। ম্যাচটি হবে লন্ডনের দ্য ওভালে, বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায়। আর এই ম্যাচে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে ধারাভাষ্য দেবেন ৪৬ বছর শচীন টেন্ডুলকার।

১৯৯২ বিশ্বকাপে মাত্র ১৯ বছর বয়সে অভিষেক হয় শচীন টেন্ডুলকারের। এরপর আরও পাঁচটি বিশ্বকাপ খেলেন ভারতের ‘ক্রিকেট ঈশ্বর।’ ঘরের মাটিতে জেতেন ২০১১ বিশ্বকাপ। তবে এবার ২০১৯ ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপে আবারও অভিষেক হতে যাচ্ছে লিটল মাস্টারের।

মাস্টার ব্লাস্টার ম্যাচ শুরুর আগে হিন্দী ও ইংরেজিতে হওয়া প্রাক-কথন অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন । অনুষ্ঠানটির নাম রাখা হয়েছে ‘আবারও শচীনের অভিষেক।’

বিশ্বকাপের ৬টি আসরে করেন সর্বোচ্চ ২২৭৮ রান করেছেন তিনি। বিশ্বকাপের এক সংস্করণেও সর্বোচ্চ রান করেন শচীন। ২০০৩ বিশ্বকাপে ১১ ম্যাচে করেন ৬৭৩ রান। তার ২৪ বছরের ক্যারিয়ারে রেকর্ড ৩৪,৩৫৭ রান টেস্টে ১৫,৯২১ রান ও ওয়ানডেতে ১৮,৪২৬ রান রয়েছে তার।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ত্রিশ হাজার রানের মাইলফলক ছোঁয়া একমাত্র ক্রিকেটার যিনি সেঞ্চুরির সেঞ্চুরি করে। টেস্টে শচীনের সেঞ্চুরি ৫১টি, ৪৯টি ওয়ানডেতে। ৫০ ওভারের ম্যাচে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ানও এই ক্রিকেটার।