ইতিহাস রচনা করে ফিরে গেলেন মরগান

বিশ্বকাপের এবারের আসরে ২৪তম ম্যাচে আজ স্বাগতিক ইংল্যান্ডের মুখোমুখি আফগানিস্তান। বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে ৩টায় ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে দুই দল মুখোমুখি হয়।

৪ ম্যাচে ৩ জয়ে পয়েন্ট টেবিলের চার নম্বরে আছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। অন্যদিকে, ৪ ম্যাচে কোনো ম্যাচেই জয়ের দেখা পায়নি আফগানিস্তান।

টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক মরগান। ব্যাট করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে ইংল্যান্ড। তবে তাদের উড়ন্ত সূচনাতে আটকে দেন দৌলত জাদরান। ৩১ বলে ৩ চারের সাহায্যে ২৬ করা জেমস ভিন্স ফিরিয়ে দেন।

তবে অন্য প্রান্তে থাকা জনি বেয়ারস্টো ঠিকই নিজেই আরেকটি অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন। ৬১ বলে ৫টি চার ও ১টি ছক্কা হাঁকিয়ে তিনি এই অধশতক হাঁকান। অর্ধশতক হাঁকিয়ে সেঞ্চুরি করার পথে ছিলেন তিনি। কিন্তু ৯০ রানের মাথায় গুলবদীন নাঈবের বলে ফিরে যান।

জেমস ভিন্স আউট হলে ক্রিজে আসেন জো রুট। এসেই দুর্দান্ত হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিলেন তিনি। ৫৪ বলে ২টি হাঁকিয়ে অর্ধশতক তুলে নেন। এরপর ক্রিজে আসেন অধিনায়ক ইয়ান মরগান। ৬ টি ছক্কা ও ২টি চারের সাহায্যে অর্ধশতক হাঁকান তিনি।

অর্ধশতক হাঁকানো পর টর্নেডো ইনিংস শুরু করেন তিনি। ৫৭ বলে ছক্বার পর ছক্কা হাঁকিয়ে সেঞ্চুরি তুলে নিলেন। ১১টি ছক্কায় ও ৩টি চার হাকিয়ে তিনি এই সেঞ্চুরি হাঁকান। এরপর আরো নারকীয় হয়েও ওঠেন মরগান। আফগানিস্তানের বোলারদের নিয়ে রীতিমত ছেলে করছেন।

তবে মরগান যখন টর্নেডো চলাচ্ছেন তখন অন্য প্রান্তে সেঞ্চুরি অপেক্ষায় ছিলেন জো রুট। তবে তাকে সেঞ্চুরি করতে দিলেন না গুলবদীন নাঈব। ৮২ বলে ৫ চার ও ১টি ছয় হাঁকিয়ে ৮৮ রান করেন। এরপর আবারো নাঈবের আঘাতে ফিরে যান মরগান। তবে যাওয়া আগে ইতিহাস রচনা করে ফিরে গেলেন তিনি। বিশ্বকাপে এক ম্যাচে ১৭ ছক্কা হাকিয়ে রেকর্ড সৃষ্টি করেন। ৭১ বলে ১৭টি ছয় ও চারটি চারের সাহায্যে ১৪৮ রান করে ফিরে যান।