ওয়ার্নারের সেঞ্চুরিতে পাকিস্তানকে বিশাল টার্গেট দিল অস্ট্রেলিয়া

আজ বুধবার বিশ্বকাপের ১৭ ম্যাচে মুখোমুখি হয় অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান। বাংলাদেশ সময় ৩.৩০ মিনিটে ম্যাচটি শুরু হয়। আজকে ম্যাচে টসে জিতে বোলিং করা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে আমিরের বোলিং তোপে কোন রান নিতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। তবে পড়ে ওভারের খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসে ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। চার হাঁকিয়ে রানের খাতা খুলেন। এরপরই পাকিস্তানি বোলাদের ওপর তাণ্ডব চালানো শুরু হয়। পাকিস্তানি বোলাদের ওপর তাণ্ডব চালিয়ে হাফসেঞ্চুরি তুলে নিলেন অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। ৬৩ বলে ৬ টি চার ও ১ ছক্কায় তুলে নেন অর্ধশতক।

এরপর অর্ধশতক তুলে নিলেন ওয়ার্নার। ৫১ বলে ছয়টি চারে সাহায্যে তিনি অর্ধশতক হাঁকান। এরপরই তাণ্ডব চালানো অ্যারন ফিঞ্চকে ফেরালেন আমির। ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে হাফিজের হাতে ধরা পরেন। তবে যাওয়া আগে ৮৪ বলে ৬টি ছয় ও ৬টি চারের সাহায্যে ৮২ রান করেন।

ফিঞ্চ বিদায় নিলে ক্রিজে আসেন সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। ঝলে ওঠার আগেরই তাকে ফিরিয়ে দিলন হাফিজ। ১৩ বলে ১০ রান করে ফিরে যান তিনি। এরপর ক্রিজে এসেই তাণ্ডব চালানো শুরু করে ছিলেন ম্যাক্সওয়েল। তবে তাকে সরাসরি বোল্ড করে ফিরিয়ে দেন শাহিন আফ্রিদি। ১০ বলে ১ ছয় ও ২ চারে ২০ রান করেন।

তবে তাণ্ডব চালিয়ে সেঞ্চুরি তুলে নিলেন ওয়ার্নার। ১০২ বলে ১১ টি চার ও ১টি ছক্কা হাঁকিয়ে নিজের আরেকটি মাইলফলকে স্পর্শ করল তিনি। তবে সেঞ্চুরির পর বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি তিনি। শাহিন আফ্রিদি এক স্লো ডেলিভারিতে ইমাম-উল-হকের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান। যাওয়া আগে ১১১ বলে ১০৭ রান করেন তিনি।

এরপর ক্রিজে আসেন উসমান খাজা। ওপেনার খাজাকে নামনো হয়েছে ৬ নম্বরে। ৬ নম্বরে ১৬ বলে তিনটি চার হাঁকিয়ে আমির বলে রিয়াজের হাতে ধরা পড়ে ফিরে যান। আবারো আমিরের আঘাত। ২৬ বলে ২৩ রানে ফিরে যান শন মার্শ। শন মার্শের পর ওয়াহাব রিয়াজ বলে ৩ বলে ২ রান ফিরে যান নাথান কোল্টার-নাইল। এরপর উইকেটে দেখা পেলেন হাসান আলী। প্যাট কামিন্সকে রানে ফিরিয়ে দেন তিনি।

শেষের দিকে অ্যালেক্স ক্যারির ব্যাটে বিশাল রানের টার্গেট পায় অস্ট্রেলিয়া। তবে আমিরে বলে ২০ বলে ২ চার হাঁকিয়ে ২০ রান করে তিনি। এরপর আবারো আমিরের আঘাতে সবকটি উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। শেষ পর্যন্ত ৪৯ ওভারে ৩০৭ রান। পাকিস্তানকে জিততে হলে করতে হবে ৩০৮ রান। পাকিস্তানে আমির ১০ ওভারে ৩০ রান দিয়ে পেয়েছেন ৫ উইকেট।

পাকিস্তান একাদশ: ফখর জামান, ইমাম-উল-হক, বাবর আজম, সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), শোয়েব মালিক, মোহাম্মদ হাফিজ, আসিফ আলী, শাহিন আফ্রিদি, হাসান আলী, ওয়াহাব রিয়াজ, মোহাম্মদ আমির।

অস্ট্রেলিয়া একাদশ: অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), ডেভিড ওয়ার্নার, উসমান খাজা, স্টিভেন স্মিথ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, শন মার্শ, অ্যালেক্স ক্যারি (উইকেটরক্ষক), প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, নাথান কোল্টার-নাইল ও কেন রিচার্ডসন।