জামায়াতকে লালন-পালন করে টিকিয়ে রাখছে আওয়ামী লীগ: রুমিন ফারহানা

সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি ও বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক রুমিন ফারহানা সরকারে কাছে ইসলামী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ জামায়তে ইসলামীকে নিষিদ্ধ করতে এবার প্রশ্ন তুলেছেন।

রুমিন ফারহানা বলেছেন, জামায়াতকে কেন নিষিদ্ধ করা হয় না? বারবার কেন আদালতের দিকে তাকিয়ে থাকা হয়? এ প্রশ্ন তো আমারও। দীর্ঘদিন ধরে এ প্রশ্ন করে আসছি। এই প্রশ্নটার উত্তর আমি পাচ্ছি না।

Advertisement

গতকাল বৃহস্পতিবার (২০ জুন) রাতে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সরাসরি টক-শো অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে সঞ্চালকের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আমি যদি বলি জামায়াতকে লালন-পালন করে রাজনীতিতে টিকিয়ে রাখে আওয়ামী লীগ তার নিজের স্বার্থে, তাহলে কি ভুল হবে? হবে না। ১৯৯৬ সালের ১৭৬ দিন হরতাল যখন করেছিল আওয়ামী লীগ, তাদের সঙ্গী কে হয়েছিল? এই জামায়াত।

সংরক্ষিত মহিলা আসনের বিএনপির এই এমপি বলেন, আওয়ামী লীগের নেতাদের ছবি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ঘাটলে আপনি খুঁজে পাবেন। জামায়াতের বড় বড় নেতাদের সঙ্গে তাদের নেতারা কিভাবে ঝুঁকে কথা বলছেন সেই ছবি।

রুমিন ফারহানা বলেন, প্রেক্ষাপট থাকলে আদর্শ আর থাকল কোথায়? আজকে তো আদর্শের কথা হচ্ছে। তখন তো জামায়াত মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী ছিল না। এখন কি নতুন করে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী হয়ে গেছে? সঙ্গে থাকলে সঙ্গী আর সঙ্গে না থাকলে জঙ্গী, এই হল আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী লীগের বিশ্লেষকদের মতামত।

তিনি আরো বলেন, আপনি আমাকে সেই গ্যারান্টি দিন তো, আজকে বিএনপি যদি জামায়াত ছেড়ে দেয় কালকে আওয়ামী লীগ জামায়াতকে কোলে তুলে নেবে না? কারণ আওয়ামী লীগকে আমরা হেফাজতের সঙ্গে রাজনীতি করতে দেখেছি। জামায়াতের ২-৩ ভাগ ভোট আছে। এখানে আদর্শের কোন ব্যাপার নয়, পুরোপুরি ভোটের হিসাব। ভোটের হিসাব-নিকাশ করেই জামায়াতকে নিয়ে বিএনপির জোট করা।