টানটান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে ১১ রানে হেরে গেল আফগানিস্তান

ভারতের দেওয়া ২২৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ধীর গতিতে শুরু করেছে আফগানিস্তান। ভারতীয় দুই বোলার সামি ও বুমরাহ বোলিংয়ে কোন মতে সামলে নিচ্চে আফগান ব্যাটসম্যানরা। এরই মধ্যে দলীয় তৃতীয় ওভারে এলবির আবেদন করে ভারত। কিন্তু আম্বায়ার আউট না দিলে রিভিউ নেন ভারতীয় অধিনায়ক। কিন্তু বল লাইনের বাইরে থাকায় রিভিউ লস হয় ভারতে।

ভালো শুরু করেও বিপাকে আফগানিস্তান। ২০ রানে মাথায় আউট হন জাজাই। এরপর ২৭ রান করে গুলবদীন নাঈব। ৩৬ রান করে বোমরার বলে ফিরে যান রহমত শাহ। আবারো বোমরার আঘাত। ফিরে যান হাশমতুল্লাহ শহীদী। ৪৫ বলে ২১ রান করেন তিনি। এরপর চাহলে বলে ফিরে যান আসগর আফগান। দলকে বিপদে ফেলে ১৯ বলে ৮ রান করে বিদায় নেন তিনি।

বিপর্যয় থেকে কিছুটা হলেও দলকে টেনে তোলার চেষ্টার করে নাজিবুল্লাহ জাদরান। কিন্তু ২৩ বলে ২১ রান করে পান্ডিয়ার বলে ফিরে যান। তার বিদায় জয়ে থেকে দূরে চলে গেল আফগানিস্তান। অর্ধশতক হাঁকিয়ে বিদায় নিলেন নবী জিতাতে পারেননি নবী। নবীর আউট হলে বাকি দুই জন ও আউট হন। আর এতে ১১ রানে জয় পায় ভারত। ৪৯.৫ বল বলে সব উইকেট হারায়।আফগানিস্তান।

এর আগে বিশ্বকাপে আজকের ২৮তম ম্যাচে মুখোমুখি অন্যতম হট ফেবারিট দল ভারত ও সবচেয়ে দুর্বল দল আফগানিস্তান। ইংল্যান্ডোর হ্যাম্পশায়রের সাউথহ্যাম্পটনে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে তিনটায় খেলাটি শুরু হয়।

ভারত এখন পর্যন্ত ৪ ম্যাচের মধ্যে তিন জয় ও এক পরিত্যাক্ত ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে চতুথ স্থানে। অন্যদিক, ৫ ম্যাচে খেলে আফগানিস্তান কোন জয় না পেয়ে পয়েন্ট তালিকায় একেবারে তলানীতে।

টসে জিতে ব্যাট করা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ব্যাট করতে নেমে কিছুটা ধীরগতিতে শুরু করে দুই ওপেনার। আফগানদের আটসাটো বোলিংয়ে চাপের মুখে পড়ে ভারত। চাপ থেকে বের হওয়ার আগেই রোহিত শর্মার স্ট্যাম্প উড়িয়ে দিল মুজিব। ১০ বলে মাত্র ১ রান করেন রোহিত।

এরপর মোহাম্মদ নবীর আঘাত। দারুণ খেলতে থাকা রাহুলকে ৩০ রানের মাথায় ফিরে দেন। ৫৩ বলে ২টি চার হাকিয়ে এই রান করেন রাহুল। রাহুল আউট হলেও হাফসেঞ্চুরি তুলে নিলেন অধিনায়ক কোহলি। ৪৮ বলে চারটি ৪ হাঁকিয়ে তিনি এই অর্ধশতক করেন।

বিজয় শঙ্করকে এলভির ফাঁদে ফিরিয়ে দেন রহমত শাহ। ৪১ বলে দুটি চার হাঁকিয়ে ২৯ রান করেন বিজয়। এরপর মোহাম্মদ নবীর আঘাত। ফিরিয়ে দিলেন কোহলিকে। ৬৩ বলে ৫টি চার হাঁকিয়ে ৬৭ রান করেন।

কোহলি ফিরে গেলে চরম চাপের মধ্যে পরে ভারত। তবে সেই চাপ থেকে বের হতে পারেনি তারা। চাপ সামলাতে কিছুটা চেস্টা করেন ধোনি ও জাদব। তবে রশিদের ঘুর্ণিতে বোকা বনে গেলনে ধোনি। ৫২ বলে ২৮ রান করেন ধোনি। এরপর ফিরে যান পান্ডিয়া। আফতাব আলমের বলে ৯ বলে ৭ রান আউট হন তিনি।

এই চাপের মুখে হাফসেঞ্চুরি তুলে নিলেন কেদার জাদব। ৬৮ বলে ৫২ রান করে আলমের বলে ফিরে যান তিনি। শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২২৪ রান করে ভারত। জিততে হলে ২২৫ রান করতে হবে আফগানিস্তানকে। এরপর রশিদ খানকে ফিয়ে দেন যুবেন্দ্র চাহাল। ১৬ বলে ১৪ রান করে তিনি।

ভারত একাদশ: রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), বিজয় শঙ্কর, এমএস ধোনি, কেদার জাদব, হার্দিক পান্ডিয়া, কুলদীপ যাদব, মোহাম্মদ শামী, যুবেন্দ্র চাহাল, জাসপ্রিত বুমরাহ।

আফগানিস্তান একাদশঃ হযরতউল্লাহ জাজাই, গুলবদীন নাঈব (অধিনায়ক), রহমত শাহ, হাশমতুল্লাহ শহীদী, আসগর আফগান, মোহাম্মদ নবী, ইকরাম আলী খিল, নাজিবুল্লাহ জাদরান, রশিদ খান, আফতাব আলম, মুজিব উর রহমান।