মুখোমুখি ভারত-নিউজিল্যান্ড পরিসংখ্যানে এগিয়ে যারা

আজ (বৃহস্পতিবার) বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে হাইভোল্টেজ ম্যাচ মুখোমুখি নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩.৩০ মিনিটে নটিংহ্যামের ট্রেন্টব্রিজে খেলাটি শুরু হবে। খেলাটি সরাসরি দেখা যাবে বিটিভি, গাজী টিভি, মাছরাঙা, স্টার স্পোর্টস ওয়ান ও টু। বিশ্বকাপের শেষ চারের দাবি শক্ত করতে এ ম্যাচকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে দুদলই।

টুর্নামেন্ট এখনো অপরাজিত দুই দলের লড়াই। তিন জয় নিয়ে দুরন্ত গতিতে ছুটে চলেছে নিউজিল্যান্ড। আর দুই জয় নিয়ে তাদের পিছে রয়েছে ভারত। এবারের বিশ্বকাপের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান শুরু থেকেই নিজেদের দখলে রেখেছে নিউজিল্যান্ড। তবে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ভারত যদি আজকের ম্যাচটি জিতে নেয় তবে হারের সঙ্গে সঙ্গে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানও খোয়াতে পারে কেন উইলিয়ামসনের দল।

এবারের টুর্নামেন্ট শুরুর আগ থেকেই ফেভারিটের তালিকায় ওপরের সারিতে উচ্চারিত নাম ভারত। তাদের দীর্ঘ ব্যাটিং লাইন আর নিজেদের ইতিহাসের সেরা বোলিং লাইন নিয়ে ইংল্যান্ডে পা রেখেছে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। বিরাট কোহলি, ধোনি, রোহিত শর্মা-ভুবনেশ্বর কুমাররা তাই আরো একটি ইতিহাস রচনা করতে চান।

আজকের ম্যাচে চোটের কারণে শিখর ধাওয়ানকে পাচ্ছে না ভারত। ফলে উদ্বোধনীতে ব্যাট হাতে দেখা যাবে লোকেশ রাহুলকে। আর রান বন্যার পিচ হওয়ায়, বোলিংয়েও পরিবর্তন আনতে পারেন কোহলি। অন্যদিকে, গাপটিল-টেইলর-ফার্গুসনের ফর্মে ভারত বাধা পার হবার প্রত্যাশায় ব্ল্যাক-ক্যাপস শিবির। বিশ্বকাপের পরিসংখ্যান এ ক্ষেত্রে গেলবারের ফাইনালিস্টদের সাহস দিচ্ছে। সাতবারের দেখায় তিন হারের বিপরীতে চারটি জয় কিইউদের।

ওয়ানডে ক্রিকেটে মুখোমুখি লড়াইয়ের কিছু পরিসংখ্যান জেনে নেয়া যাক :

ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত ১০৬বার মুখোমুখি লড়াই হয়েছে ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে। জয়ে এগিয়ে ভারত। তাদের ৫৫ জয়ের বিপরীতে নিউজিল্যান্ডের জয় ৪৫ ম্যাচে। বাকি ৬ ম্যাচের ১টি টাই এবং ৫টি পরিত্যক্ত। বিশ্বকাপের জয়ের দিক থেকে ভারতের চেয়ে অবশ্য এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। পরস্পরের ৭ দেখায় ভারতের জয় যেখানে ৩ ম্যাচে, সেখানে ব্ল্যাকক্যাপসের জয় ৪ ম্যাচে।

দলীয় সর্বোচ্চ: ভারত : ৩৯২/৪, ক্রাইস্টচার্চ, ২০০৯। নিউজিল্যান্ড : ৩৪৯/৯, রাজকোট, ১৯৯৯।

দলীয় সর্বনিম্ন: ভারত : ৮৮/১০, ডাম্বুলা, ২০১০। নিউজিল্যান্ড : ৭৯/১০, বিশাখাপত্তম, ২০১৬।

সর্বোচ্চ রান: শচীন টেন্ডুলকার (ভারত)- ১৭৫০ রান। নাথান অ্যাস্টল (নিউজিল্যান্ড)- ১২০৭ রান।

সর্বোচ্চ উইকেট: জাভাগাল শ্রীনাথ (ভারত)- ৫১ উইকেট। কাইল মিলস (নিউজিল্যান্ড)- ৩২ উইকেট।