ম্যাচ হেরে যাকে দুষলেন রশিদ খান

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের প্রথম পর্ব এখনো শেষ হয়নি। তবে তার আগে এবারের বিশ্বকাপে প্রথম দল হিসেবে গতকাল টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়েছে আফগানিস্তান। এখন পর্যন্ত তাদের নামের পাশে জয় লেখা হয়নি। গতকাল ভারতের বিপক্ষে জয়ের একটা সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু সেটা কাজে লাগাতে পারেনি তারা। টসে হলে ব্যাট করতে নেমে ২২৪ রানে আটকে দেয় ভারতকে।

কিন্তু ব্যাট করতে নেমে ভারতের আটসাটো বোলিংয়ে দিশেহারা আফগানিস্তান। শেষ পর্যন্ত লড়াই করে নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে ভারতের কাছে ১১ রানে হেরে যাওয়ায় বিশ্বকাপ থেক প্রথম দল হিসেবে বিদায় অনেকটা নিশ্চিত।

আর আফগানিস্তানের মতো বাজে সময় কাটাচ্ছেন দলের সেরা বোলিং অলরাউন্ডার রশিদ খানও। বিশ্বকাপের এখন পর্যন্ত ৬ ম্যাচ খেলে পেয়েছেন মোটে ৪ উইকেট। ইংল্যান্ড ম্যাচেতো করেছেন লজ্জার রেকর্ডও। রুট আর মরগ্যানদের বিপক্ষে ৯ ওভার বল করে ১১০ রান দিয়েছেন তিনি। যা বিশ্বকাপ ইতিহাসে সবচেয়ে খরুচে বোলিং। আর ওয়ানডে ইতিহাসে দ্বিতীয়। দলের এমন বাজে অবস্থায় মুখ খুললেন রশিদ খানই। তিনি মনে করেন দলের এমন ব্যর্থতার বড় কারণ প্রস্তুতি আর অভিজ্ঞতার ঘাটতি।

রশিদ খান বলেন, আমরা অভিজ্ঞতার অভাবে বার বার হেরে যাচ্ছি। আসলে ‘আমার মনে হয় না আমরা এই টুর্নামেন্টের জন্য প্রস্তুত। আমাদের এক বা দুই ম্যাচ জেতা উচিত ছিল। আমাদের সামনে সেই সুযোগ এসেও ছিল। আশা করছি, সময়ের পরিক্রমায় আমরা তা অর্জন করবো।

এদিকে, মাঠের বাইরেও খুব একটা ভালো অবস্থায় নেই আফগানিস্তান ক্রিকেট। চোট দেখিয়ে বিতর্কিতভাবে দলের সেরা ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ শেহজাদকে বাদ দেয়া, কোচ ফিল সিমন্স ও সাবেক প্রধান নির্বাচক দৌলত আহমদজাইয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি! সব মিলিয়ে বেশ অস্বস্তিকর সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে আফগান ক্রিকেট।

তাছাড়া বিশ্বকাপ শুরুর পর একাধিক বিতর্কে জড়িয়ে পড়া আফগান ক্রিকেট বিশ্বকাপের আগেও পড়ে সমালোচনার মুখে। হঠাৎ করেই পরীক্ষিত আসগর আফগানকে অধিনায়কের পদ থেকে সরিয়ে দেয় বোর্ড। দায়িত্ব দেওয়া হয় গুলবদিন নাইবের কাঁধে। তখন এ নিয়েও বেশ ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন রশিদ।