যারা প্রজেক্ট বানায় তাদের ধরে পেটানো উচিত: মঈন উদ্দীন বাদল

চট্টগ্রাম কালুরঘাট এলাকার সংসদ সদস্য ও জাসদের একাংশের কার্যকরী সভাপতি মঈন উদ্দীন খান বাদল সংসদে বলেছেন, যারা প্রজেক্ট বানায় তাদের ধরে এনে পেটানো উচিত।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এ মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে চট্টগ্রামে কালুরঘাট ব্রিজের সদগতি (কাজের সুরাহা) না হলে সংসদ থেকে বের হয়ে যাব। কালুরঘাট ব্রিজ প্রকল্পে চার বার ফিজিবিলিটি স্টাডি হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার এসএমবিসি ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি করেছে, তাইওয়ানের ‘ওইকন’ করেছে, বাংলাদেশের এইচ কনসালটেন্ট করেছে। এটা শেষ হওয়ার পর দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে কথা হয়েছে।

মঈন উদ্দীন খান বাদল বলেন, এই প্রজেক্টের প্রস্তাবিত ব্যয় ধরা হয়েছিল এক হাজার ১৬৩ কোটি টাকা। তারমধ্যে থেকে জিওবি ফান্ড থেকে ৩৭৯ কোটি টাকা, বাকি পুরো টাকা দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়া। এর সুদ ০.০১ শতাংশ।

তিনি আরো বলেন, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে কালুরঘাট ব্রিজের সদগতি না হলে এই সংসদ থেকে বের হয়ে যাব। আমি আমার এলাকায় যেতে পারি না। সবাই আমাকে এই কাজের অগ্রগতি সম্বন্ধে জিজ্ঞেস করে। এই রকম অপমান মেনে নেয়া যায় না।

বাদল সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের ব্যয় বাড়ানোয় সমালোচনা করে বলেন, এটা কি তামাশার দেশ পাইছেন। ২০ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প সেটা বেড়ে এক লাখ কোটি টাকা করার প্রস্তাব করা হয়। কি কারণে? কেন, কী কারণে? যারা প্রজেক্ট বানায় তাদের ধরে এনে পেটানো উচিত।