বাংলাদেশের আক্ষেপ এবার বুঝল ভারত

বিশ্বকাপের মত বড় আসরে নক আউট পর্বে যদি আম্পায়ারের ভুল সিদ্ধান্তের কারণে কোন ম্যাচে হারে তাহলে কতটা কষ্ট লাগে তা মনে হয় বাংলাদেশের ভক্তরা খুব ভালো করেই জানে।

২০১৫ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার ম্যাচ। কোয়ার্টার ফাইনালের সেই ম্যাচে বাংলাদেশ হেরেছিল ভারতের কাছে।

ওই ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে দুটি সিদ্ধান্ত দেয় আম্পায়াররা। প্রথম সিদ্ধান্ত ছিল রোহিতের ব্যাটিংয়ের সময়। তার আউট নো বলে দিয়ে রোহিতকে বাঁচিয়ে দেয় আম্পায়ার। পুরো বিশ্বে সমালোচনা হয় এই সিদ্ধান্তের।

এরপ দ্বিতীয় সিদ্ধান্তটি যায় টুর্নামেন্টে দারুণ খেলতে থাকা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের বিপক্ষে। দুটি সেঞ্চুরি করা রিয়াদ বল মারেন উড়িয়ে। তার বল ধাওয়ান ক্যাচ ধরে। কিন্তু রিপ্লেতে দেখা যায় ক্যাচের সময় ধাওয়ানের পা বাউন্ডারি লাইন স্পর্শ করে।

টিভি আম্পায়ার সেই রিপ্লে মাত্র একবারই দেখেন। জুম করে না দেখে তিনি খুব দ্রুতই সিদ্ধান্তটি দেন ভারতের পক্ষে।

ইতিহাস যেন এবার নিজে নিজেই ফিরে আসলো ২০১৯ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে যখন ধোনি আউট হন তখন নিউজিল্যান্ডের ৬ জন ফিল্ডার সার্কেলের বাইরে ছিল। নিয়ম অনুযায়ী পাঁচ জনের বেশি থাকলেই নো বল। সাথে ফ্রি হিট। কিন্তু আম্পায়ার সেদিকে নজর দেয়নি। ফলে নো বলেই আউট হতে হয় ধোনিকে।

এটা নিয়ে এখন প্রচুর সমালোচনা হচ্ছে ভারত জুড়ে। কিন্তু তাতে কি? যা হওয়ার তা তো হয়েই গেছে। বাংলাদেশের কেমন লেগেছিল সেদিন এবার বুঝবে ভারত।