অভিষেকে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ইতিহাসের পাতায় নাম লেখালেন মায়ার্স

বাংলাদেশের বিপক্ষে চট্রগ্রাম টেস্টে অভিষেকে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ইতিহাসের পাতায় নাম লেখালেন কাইল মায়ার্স।

জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়ের জন্য ৩৯৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে কাল ৫৯ রান তুলতে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এখান থেকে অবিশ্বাস্য এক লড়াইয়ে ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়ার চেষ্টায় বেশ খানিকটা পথ এগিয়ে গেছেন দুই অভিষিক্ত কাইল মায়ার্স ও এনক্রুমা বোনার।

টেস্ট ইতিহাসে অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে অভিষেকে চতুর্থ ইনিংসে সেঞ্চুরির দেখা পেলেন মায়ার্স। ২০১২ সালে অ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সর্বশেষ এ নজির গড়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার ফাফ ডু প্লেসি।

১৯৫৯ সালে ম্যানচেস্টারে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম এ নজির গড়েন ভারতের আব্বাস আলী বেগ। বাকি পাঁচজনঃ ফ্রাঙ্ক হেইস (ইংল্যান্ড), লেন বাইচান (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), মোহাম্মদ ওয়াসিম (পাকিস্তান), ইয়াসির হামিদ (পাকিস্তান) ও ডোয়াইন স্মিথ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ)।

প্রতিবদন লেখা সময় পর্যন্ত উইন্ডিসের টেস্ট স্কোরঃ ২৬১/৩ (৯৫ ওভার) শেষে মায়ার্স ১১৬ রান ও বনার ৭৮ রা করে অপারাজিত আছেন। টাইগারদের বিপক্ষে জিততে হলে উইন্ডিসের প্রয়োজন ১৩৪ রান।

অর্থাৎ মায়ার্সের আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেট ইতিহাসে মাত্র দুজন ব্যাটসম্যান অভিষেক টেস্টে চতুর্থ ইনিংসে সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন।

উল্লেখ্য, ১৮ বছর পর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ইয়াসিরের সেই স্মৃতিই যেন ফিরিয়ে আনছেন মায়ার্স। ইয়াসির হামিদের পর বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেকে মায়ার্স–ই প্রথম সেঞ্চুরি করলেন।