ক্রিকেটার নাসিরের বউকে নিয়ে মাওলানা রব্বানীর বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল

বাংলাদেশের জাতীয় দলের ক্রিকেটার নাসির হোসেনকে নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা যেন থামছেই না। বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে তামিমা তাম্মি নামের এক নারীকে বিয়ে করে তুমুল বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটে ‘ব্যাড বয়’ খ্যাত নাসির হোসেন। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে বিয়ে করেন নাসির-তামিমা।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি হলুদ ও ১৯ ফেব্রুয়ারি হয়েছে বিবাহোত্তর সংবর্ধনাও। এরইমধ্যে অভিযোগ উঠেছে, ৮ বছরের কন্যাকে রেখে আগের স্বামীকে তালাক না দিয়েই নাসিরের সঙ্গে বিয়ে করেছেন স্ত্রী তামিমা তাম্মি।

এদিকে নাসিরের বিয়ের বিষয়টি ওয়াজ-মাহফিলের আলোচনায়ও স্থান পেয়েছে। অন্যের বউ বিয়ে নিয়ে অনেকেই মাওলানা গোলাম রব্বানী যুক্তিবাদীর কাছে তার মতামত জানতে চেয়েছেন। এ নিয়ে ঝিনাইদহে একটি ওয়াজে পবিত্র কোরআনের আলোকে বক্তব্য দিয়েছেন তিনি। ইতোমধ্যে ইউটিউব ও ফেসবুকে সেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে।

নাসির-তামিমার বিয়ে প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, নারীদের দোষ আগে দেবেন নাকি পুরুষের দোষ আগে দেবেন? সমাজের অবস্থা এমন হয়ে গেছে বউ তুমি কার? বউ একজনের আছে এরপরও আরেকজনের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। এগুলো নারী নাকি বেহায়া ডাইনি।

পবিত্র কোরআনের সূরা নুরে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বলেন, দুশ্চরিত্রবান নারীর জন্য দুশ্চরিত্র পুরুষ, দুশ্চরিত্রবান পুরুষের জন্য দুশ্চরিত্র নারী।

মাওলানা গোলাম রব্বানী বলেন, আমার কাছে ২০টি এসএমএস ও ১০০টি কল আসছে, সবাই জানতে চেয়েছেন- হুজুর পালিয়ে অন্যের বউ বিয়ে করা জায়েজ নাকি হারাম। অন্যের বউকে ভাগিয়ে নিয়ে বিয়ে করা জায়েজ নাই। এ ধরনের কাজ যারা করে তাদের বিয়ে হবে না, তাদের বিয়ে বাতিল। অন্য আলেম ওলামাদের কাছ থেকে ফতোয়া নেবেন। অন্যের বউকে ভাগিয়ে নিয়ে বিয়ে করলে এ বিয়ে হবে না। শুধু তাই নয়, তিনি একজন মুসলমান ভাইয়ের হক নষ্ট করেছেন। এজন্য তার ডবল গুণাহ হবে।