ফসলের মাঠে ভাষা শহীদদের সম্মানে কৃষকের প্রাণের শহিদ মিনার

ভাষা আন্দোলন দিবস বাংলাদেশে পালিত একটি জাতীয় দিবস। ১৯৫২ সালে তদানীন্তন পূর্ব বাংলায় আন্দোলনের মাধ্যমে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা দেয়ার লক্ষ্যে যারা শহীদ হয় তাদের প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদর্শনের জন্য এই জাতীয় দিবসটি পালন করা হয়।

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার জাফরাবাদ গ্রামের কৃষক রুমান আলী শাহ ফসলের মাঠে শহিদ মিনার তৈরি করেছেন।

মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে সামনে রেখে সবজি দিয়ে শহিদ মিনারটি তৈরি করেন তিনি। ভাষা দিবস উপলক্ষ্যে ব্যতিক্রমী এ শিল্পকর্মের জন্য প্রশংসায় ভাসছেন কৃষক রুমান।

দেখা গেছে, থরে থরে সবুজ সবজি সাজিয়ে গড়ে তোলা বেদির বুকে লাল সবজি দিয়ে রক্তলাল সূর্যের আলপনা এঁকে তৈরি করা হয়েছে প্রাণের শহিদ মিনার।

মিনারের নিচে সবজি চারা সাজিয়ে লেখা হয়েছে- মোদের গরব মোদের আশা, আমরি বাংলা ভাষা।

উল্লেখ্য, প্রায় দেড় একর ফসলের জমির মাঠের মাঝখানটা জুড়ে তৈরি করা হয়েছে একুশের অনবদ্য ক্যাম্পাস। আর দৃষ্টিনন্দন এ ক্যাম্পাসও সাজানো হয়েছে বাংলা বর্ণমালা দিয়ে। কৃষক রুমান আলীর ব্যতিক্রমী এ শিল্পকর্ম দেখতে জাফরাবাদ গ্রামের লোকজন তার ফসলের খামারে ভিড় করছেন।