প্রথম সংবাদ পাঠের আনন্দে কাঁদলেন ট্রান্সজেন্ডার তাসনুভা

গত কয়দিন ধরে খুশির জোয়ার বইছে। খুশিতে আমি কেঁদে ভাসিয়েছি। বৈশাখী টিভি যে কাজটি করেছে, এতে করে রুপান্তরিত নারী-পুরুষরা তাদের সক্ষমতা অনুযায়ী কাজ করার সুযোগ পাবে। কথাগুলো বলছিলেন ট্রান্সজেন্ডার তাসনুভা আনান শিশির। যিনি দেশের প্রথম ট্রান্সজেন্ডার হিসেবে টেলিভিশন চ্যানেলে খবর পাঠ করেছেন।

স্বাধীনতার মাস মার্চ ও সূবর্ণজয়ন্তীর বছরে বৈশাখী টেলিভিশনের ব্যতিক্রমী এ উদ্যোগ সবার নজর কেড়েছে। স্বাধীনতার ৫০ বছরে প্রথমবারের মতো সংবাদ পাঠ করেন ট্রান্সজেন্ডার নারী তাসনুভা আনান শিশির। ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবসে প্রথম সংবাদ বুলেটিন উপস্থাপন করেন তিনি দুপুর ১২টায় এবং দ্বিতীয়টি বিকাল ৪টায় উপস্থাপন করার কথা।

বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম ট্রান্সজেন্ডার সংবাদপাঠক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরুর অনুভূতি জানাতে তাসনুভা বলেন, এ অনুভূতি আসলে বলে বোঝানো সম্ভব নয়। বাংলাদেশে একটি নতুন মাত্রা তৈরি হলো। নতুনভাবে একটি কমিউনিটির মানুষদের সম্মান করা হলো।