মোদির ভিসা-পাসপোর্ট বাতিল চাইলেন মমতা

খড়গপুরের জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফর নিয়ে সমালোচনা করে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশ সফরে বিশেষ শ্রেণির মানুষের জন্য ভোট চাইতে গিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর ফলে মোদি নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করেছেন বলে অভিযোগ তুলে তার ভিসা ও পাসপোর্ট বাতিলের দাবি তুলেছেন মমতা। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

মমতা বলেন, বাংলায় ভোটের সময় আপনি বাংলাদেশে কেন? আপনি যদি ভোট চলাকালীন বাংলাদেশে একটি বিশেষ শ্রেণির মানুষের জন্য ভোট চাইতে যান, তাহলে আপনার ভিসা-পাসপোর্ট কেন বাতিল হবে না? আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ করব। কখনও বলছে বাংলাদেশ থেকে মমতা সব অনুপ্রবেশ করিয়েছে, আবার কখনও বাংলাদেশে গিয়ে মার্কেটিং করছে। কে ঠিক আর কে ভুল, তার জবাব চাই। নইলে যতদূর যাওয়ার আমরা যাব।

বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, এ সময় বাংলাদেশের চলচ্চিত্র অভিনেতা ফেরদৌসের প্রসঙ্গ টানেন মমতা বলেন, গত ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে যখন এক বাংলাদেশি অভিনেতা ফেরদৌস আমাদের হয়ে প্রচারে অংশ নিলেন, তখন কি হয়েছিল? সে সময় সরকারের সঙ্গে কথা বলে সেই অভিনেতার ভিসা বাতিল করেছিল। শনিবার পশ্চিমবঙ্গের ৩০টি আসনে প্রথম দফার ভোটগ্রহণের দিন এমন প্রশ্ন ছোড়েন মমতা।

মোদিকে ইঙ্গিত করে মমতা বলেন, দেশে নির্বাচন চলছে, আর তিনি গেছেন বাংলাদেশে। সেখানে গিয়ে আবার পশ্চিমবঙ্গের ব্যাপারে জ্ঞান দিচ্ছেন। এটা নির্বাচনী বিধিমালার স্পষ্ট লঙ্ঘন।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে অংশ নিতে দুই দিনের সফরে বাংলাদেশে রয়েছেন মোদি। তিনি শনিবার দেবীর উদ্দেশে পূজা দিয়েছেন সাতক্ষীরার প্রাচীন যশোরেশ্বরী কালীমন্দিরে। পরে মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষের তীর্থস্থান গোপালগঞ্জের ওড়াকান্দিতেও যান তিনি |