রশিদরা আইপিএল খেলে, আমাদের কেন ৫জন নেইঃ প্রশ্ন সাকিবের

জনপ্রিয়তার বিচারে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্টগুলোর মাঝে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) সবার উপরে। তবে সেখানে সাকিব আল হাসান আর মুস্তাফিজুর রহমান ছাড়া বাংলাদেশের আর কাউকে আইপিএল খেলতে দেখা যায় না। সাকিব নিয়মিত হলেও মুস্তাফিজ খুব একটা নিয়মিত মুখ নয়।

আইপিএলের মতো এতো বড় টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের ৫ জন ক্রিকেটার না খেলাটা হতাশাজনক বলে মনে করেন সময়ের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার। বিশ্বের জনপ্রিয় এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের ৫ জন ক্রিকেটার খেললে বিশ্বের সেরা পাঁচ দলের একটি থাকতো বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

ক্রিকফ্রেঞ্জির লাইভে সাকিব বলেন, আমি মনে করি আমাদের দেশের ৫টা খেলোয়াড় যদি আইপিএলে খেলতো তাহলে আমাদের দল বিশ্বের ৫টা দলের মধ্যে থাকতো। এটা আমাদের জন্য হতাশাজনক যে আমাদের দলের ৫ টা খেলোয়াড় নিয়মিত আইপিএল খেলে না। যেটা হওয়া উচিত ছিল। আইপিএল হচ্ছে ১৪ বছর, যারাই খেলেছে মুস্তাফিজ আমার পরে কয়েকটা ম্যাচ খেলেছে, বাকিদের একটা ম্যাচ খেলেছে বা কেউ খেলেনি।

বাংলাদেশের ৫জন ক্রিকেটার আইপিএলে খেলার সুযোগ না পেলেও আফগানিস্তানের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার নিয়মিতই খেলছেন। রশিদ খান, মুজিব উর রহমান এবং মোহাম্মদ নবিরা দাপটের সঙ্গে ভারতের এই টুর্নামেন্ট খেলছেন। ক্রিকেটের ও দেশের উন্নতি করতে চাইলে চিন্তা-ভাবনা সুদূর প্রসারী হতে হবে।

সাকিব বলেন, সেখানে রশিদ খান, মুজিব, নবি, ওরা তিনজন কত ম্যাচ খেলে ফেলেছে। এই জায়গাগুলো আমাদের চিন্তা করতে হবে। যদি দেশের ক্রিকেটের উন্নতি চান, ক্রিকেটের উন্নতি চান তাহলে চাইবেন না যে আমি আমেরিকা বসে আছি হঠাৎ করে আমি জাতীয় দলে যাবো সেঞ্চুরি করব আর ৫ উইকেট নেব।

ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বাড়ায় সেটার সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে চলতে হবে বলে জানিয়েছেন সাকিব আরও বলেন, দিন দিন কত উন্নতি করা যায়, ভালো করা যায়। কারণ আপনি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে যদি তাল মিলিয়ে চলতে না পারেন তখন কিন্তু এই জায়গাটাতে থাকতে পারবেন না। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে গেলে ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট আসছে এটা আপনাকে মেনেই নিতে হবে। এটার সঙ্গে আপনার মানিয়ে নিতে হবে। এখানে তাছাড়া কোনো উপায় নেই।