হিন্দুদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে ঘটনায় বিচার চাইল হেফাজতে ইসলাম

সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘরবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের প্রতিবাদে দিরাইয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও হেফাজতে ইসলাম দিরাই উপজেলা শাখা।

শুক্রবার সকাল ১০টায় দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিরাজ উদ দৌলা তালুকদার ও অ্যডভোকেট সোহেল আহমেদের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের একটিদল শাল্লা উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সাথে দেখা করেন।

এলাকার সংসদ সদস্য ড. জয়া সেনগুপ্তাসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ পাশে রয়েছে বলে নোয়াগাঁওবাসীকে আশ্বস্ত করেন তারা। নোয়াগাঁও থেকে ফিরে রাত ৯টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ন্যাক্কারজন এ হামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট অভিরাম তালুকদার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন দিরাই পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা যুবলীগ নেতা বিশ্বজিৎ রায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সিরাজ উদদৌলা তালুকদার, অ্যাডভোকেট সোহেল আহমদ, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা মেহরাজ মিয়াসহ যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিকলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

লিখিত বক্তব্যে তারা উল্লেখ করেন, শাল্লায় হিন্দু সম্প্রদায়ের হামলা পূর্বপরিকল্পিত। জাতির পিতার জন্মদিনে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি যখন আনন্দ করছিল ঠিক সেই সময়ে দেশকে অস্তিতিশীল করতে এ হমালা করা হয়েছে। সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের রেখে যাওয়া শতবছরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে ধ্বংসের ষড়যন্ত্র এটি। কারণ ঘটনার পর স্থানীয় সংসদ সদস্য ড. জয়া সেনগুপ্তা বিরোধী কিছু নেতা রহস্যজনকভাবে দিরাই পৌরসভার সাবেক মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি আজিজুর রহমান বুলবুলকে জড়িয়ে মিথ্যা প্রফাগান্ডা চড়াতে থাকে। এ ঘটনার সাখে জড়িতদের কঠোর শাস্তি দাবি করে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারেরকে সহায়তার আহ্বান জানান তারা।

এদিকে শনিবার সকাল ১০টায় স্থানীয় একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করে হেফাজতে ইসলাম দিরাই উপজেলা শাখা। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মুখতার হোসাইন চৌধুরী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সভাপতি মাওলানা শায়খ আজিজুর রহমান, মাওলানা ইলিয়াস, মাওলানা আব্দুল হাই, মাওলানা আবিদুর রহমান প্রমুখ।

লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করা হয়, শাল্লায় নিরীহ হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার সাথে দিরাইয়ে হেফাজতের কোনো সম্পর্ক নেই। ঘটনাটি পূর্বপরিকল্পিত। হেফাজতে ইসলামকে সমালোচিত করার জন্য এমন কাজ করেছে দুস্কৃতিকারীরা। সঠিক তদন্তের মাধ্যমে অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে গঠিন শাস্তির দাবি করছি এবং ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করছি।