টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারত থেকে সরিয়ে নেওয়ার বিকল্প ব্যবস্থা ভাবছে আইসিসি

ভারতে ২০২১ টি২০ বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ছিল অক্টোবর-নভেম্বরে। তবে দেশটিতে হু হু করে করোনার সংক্রমণ যেভাবে বাড়ছে, তাতে সময়মতো বিশ্বকাপ হওয়া নিয়ে সংশয় দেখা দিতে পারে। তবে ছয় মাস পরের সূচিতে থাকা বিশ্ব আসরটি নিয়ে চিন্তিত নয় আইসিসি। সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য প্রচুর সময় এখনও হাতে আছে।

গতকাল বুধবার আইসিসির অন্তর্বর্তীকালীন সিইও স্যাম অ্যালারডাইস বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা পরিকল্পনামতোই এগোচ্ছি। তবে প্ল্যান বি-ও আছে। দরকার পড়লে ওই পথে যেতে হবে। বিকল্প বলতে ভারত থেকে সরিয়ে আরব আমিরাতে আয়োজনের চিন্তা করা হচ্ছে। গত বছরের আইপিএলও হয়েছিল মরুর দেশটিতে।

তবে পরিস্থিতির অবনতি হলে টুর্নামেন্ট যেন স্থগিত না করতে হয়, সে জন্য ‘প্ল্যান বি’ প্রস্তুত করা আছে বলে জানিয়েছে ক্রিকেটের বৈশ্বিক কর্তৃপক্ষ।

টি২০ বিশ্বকাপের জন্য বিকল্প ভাবনার কথা আসছে গত বছরের অভিজ্ঞতার কারণে। ২০২০ সালে টি২০ বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়ায়। কিন্তু করোনার কারণে অস্ট্রেলিয়া তখন আগ্রহী হয়নি, রাজি ছিল না কোনো কোনো অংশগ্রহণকারী দেশও। ১৬টি দেশ নিয়ে বিশ্বকাপ আয়োজন করোনার মধ্যে যে কোনো দেশেই চ্যালেঞ্জিং। তার ওপর ভারতে এখন প্রতিদিন এক লাখের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে। এমন পরিস্থিতির মধ্যে আইপিএল চালিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছে বিসিসিআই। ছয় মাস পর বিশ্বকাপ আয়োজনেও দেশটি বদ্ধপরিকর। তবে বিশ্বকাপের মূল আয়োজক আইসিসিকে ভাবতে হচ্ছে বিকল্প নিয়েও।