ডাক্তার-নার্সদের খাবারের দায়িত্ব নিলেন সালমান খান

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে ভারত। দিন যতই যাচ্ছে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু। প্রতিদিনই ভাঙছে মৃত্যু ও শনাক্তের রেকর্ড। এমন পরিস্থিতিতে করোনার সম্মুখ যোদ্ধাদের সাহায্যে এগিয়ে এলেন বলিউড তারকা সালমান খান।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মহামারীর এই সময়ে চিকিৎসক, নার্স, পৌরসভার কর্মী, প্রশাসনসহ অন্তত ৫ হাজার লোকের খাবারের দায়িত্ব নিয়েছেন ‘ভাইজান’। শিবসেনার যুব শাখার সঙ্গে মিলিতভাবে করোনা যোদ্ধাদের হাতে খাবারের প্যাকেট তুলে দিচ্ছেন তিনি। খবর আনন্দবাজার।

গতকাল রবিবার (২৫ এপ্রিল) থেকে এ কার্যক্রম চালু হয়েছে। দলের কোর কমিটির সদস্য রাহুল কনল এক বিবৃতিতে বলিউড সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, সালমানের ‘ভাইজানস কিচেন’ থেকে টিফিন এবং পানির বোতল তুলে দেয়া হচ্ছে সবার হাতে। ভাইজান নিজে দাঁড়িয়ে থেকে খাবারের মান পরীক্ষা করছেন।

রাহুল কনল আরও জানান, সালমানের মা সালমা খান তাদের বাংলোর নিরাপত্তারক্ষীদের নিজের হাতে খাবার বানিয়ে খাইয়েছেন। এর আগে শ্রমিকদের রেশন পৌঁছে দিয়েছিল সালমান খানের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘বিইং হিউম্যান’।

জানা গেছে, যতদিন মুম্বাইয়ে লকডাউন চলবে তত দিন ‘ভাইজেনস কিচেন’ এবং শিবসেনার যুব শাখা যৌথভাবে বাইকুল্লা থেকে জুহু এবং বান্দ্রা (পূর্ব) থেকে বিকেসি অঞ্চলে খাবার পৌঁছে দেবে। আপাতত ৫ হাজার জনের খাবার পৌঁছে দেয়া হবে। আগামী দিনে সেই সংখ্যা বেড়ে দ্বিগুণ অর্থাৎ ১০ হাজার হবে, এমনটাই আশ্বাস রাহুলের।