নিখোঁজ সেই সাবমেরিন থেকে জায়নামাজ উদ্ধার

৫৩ জন নাবিকসহ নিখোঁজ ইন্দোনেশিয়ার কেআরআই নাঙ্গালা-৪০২ নামের সাবমেরিনটির ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে। বুধবার সকালে বালি উপকূল থেকে ৬০ মাইল (৯৬ কিলোমিটার) দূরে জার্মান তৈরি সাবমেরিনটি নিখোঁজ হয়।

বিবিসি জানিয়েছে, নিখোঁজ হওয়ার তিনদিন পর শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে সাবমেরিনটি ডুবে যাওয়ার কথা নিশ্চিত করেছে ইন্দোনেশিয়ার নৌবাহিনী। নিখোঁজ হয়ে যাওয়া নৌবাহিনীর সাবমেরিনটি ডুবে গেছে বলে ঘোষণা করেছে সেদেশের সামরিক বাহিনী। তবে এর ৫৩ আরোহীকে জীবিত উদ্ধারের আশা শেষ হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন তারা।

আজ শনিবার (২৪ এপ্রিল) নৌবাহিনী প্রধান ইউডো মারগোনো জানান, উদ্ধারকর্মীরা একাধিক বস্তু পেয়েছেন। এসব প্রমাণের প্রেক্ষিতে আমরা এখন সাবমেরিনটিকে নিখোঁজ না বলে ডুবে গেছে বলব।

নৌবাহিনী প্রধান আরও জানান, একটি স্ক্যানারে ধরা পড়েছে সাবমেরিনটি ৮৫০ মিটারে গভীরে রয়েছে। যা মানুষের বেঁচে থাকার গভীরতা সীমার চেয়ে বেশি। এটি ৫০০ মিটার গভীর পর্যন্ত চলাচলের জন্য নির্মিত।

ধারণা করা হচ্ছে, সমুদ্রের যতো গভীরে সাবমেরিনটি চলাচল করতে পারতো তার চেয়েও সাড়ে আটশো মিটার নিচে এটি তলিয়ে গেছে। জাহাজটির সন্ধানে যারা উদ্ধার তৎপরতা পরিচালনা করছিল তারা ওই জাহাজের কিছু জিনিসপত্র পেয়েছে এবং তা থেকেই ধারণা করা হচ্ছে যে সাবমেরিনটি ডুবে গেছে।

যেসব জিনিস পাওয়া গেছে তার মধ্যে রয়েছে জায়নামাজ, গ্রিজের একটি বোতল যা লুব্রিক্যান্ট হিসেবে ব্যবহার করা হয়, একটি যন্ত্র যা টর্পোডের হাত থেকে জাহাজটিকে রক্ষায় সাহায্য করে।