সন্তান হিজড়া হওয়ায় পরিবারকে গ্রাম ছাড়ার নির্দেশ মাতব্বরদের

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় মনিরুল ইসলাম (২৭) নামের এক যুবক প্রাকৃতিকভাবে তৃতীয় লিঙ্গে (হিজড়া) রূপান্তরিত হওয়ায় তার পরিবারকে বাড়ি ও জমি বিক্রি করে উপজেলার চর ঘাটিনা গ্রামের এ ঘটনায় উল্লাপাড়া মডেল থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। এরপর পুলিশ দুই মাতব্বরকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠিয়েছে। তারা হলেন- চর ঘাটিনা গ্রামের মঞ্জু সরকার (৫২) ও মেছের আলী (৫৫)।

উপজেলার চর ঘাটিনা গ্রামের এ ঘটনায় উল্লাপাড়া মডেল থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে পৌর এলাকার চর ঘাটিনা গ্রাম থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন ওই গ্রামের মঞ্জুর আলম ও মেছের আলী।

মনিরুল ইসলাম বলেন, আমি ইচ্ছা করে হিজড়া হইনি। অন্য স্বাভাবিক মানুষের মতো জীবনযাপন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু এ সমাজে হিজড়াদের মানুষ মনে করা হয় না। ছোটবেলা থেকেই আমাকে অন্য মানুষ থেকে আলাদা করা হয়েছে। সমাজের কেউ আমাকে মেনে নেয়নি। তাই বাধ্য হয়ে তৃতীয় লিঙ্গের লোকজনের সঙ্গে চলাচল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। আর এ কারণেই আমাকে পরিবারসহ গ্রাম ছাড়ার রায় দিয়েছে।

উল্লাপাড়া থানার ওসি দীপক কুমার দাশ জানান, হিজড়া হওয়ার কারণে মনিরুলকে গ্রাম ছাড়ার রায় দেয়া হয়। এ বিষয়ে মনিরুলের বড় ভাই মজনু বাদী হয়ে ১২ জনকে বিবাদী করে মঙ্গলবার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পরে গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে ওই দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়।