স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা করছেন না ইফতারের ক্রেতা-বিক্রেতারা

স্বাস্থ্যবিধি ও নিয়মনীতির তোয়াক্কা করছেন না ক্রেতা-বিক্রেতা কেউই । মাস্ক ছাড়াই গায়ে গা ঘেঁষে করছেন কেনাকাটা।

ক্রেতারা বলেন, ইফতার বাজারে খবু ভিড়। এ কারণে আমরা সবসময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে ইফতার কিনতে পারি না। কঠোর নজরদারির পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান বাড়ানো দরকার।

অন্যদিকে বিক্রেতারা ক্রেতাদের বিষয়ে বলেন, আমাদের যে নিয়ম তা আমরা মেনে চলছি। তবে ক্রেতাদের তা মানানো যাচ্ছে না। মাস্ক পড়া না থাকলে আমরা কারো কাছে ইফতার বিক্রি করি না।

এ বিষয়ে রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালের পুষ্টিবিদ শায়লা শারমীন বলেন, প্রায় ১৬ ঘণ্টা রোজা রাখার পর ইফতার খাওয়ার সময় রাখতে হবে শসা আর শরবত ও মৌসুমী ফল। রোজায় খাবার খেতে হবে স্বাস্থ্যসম্মত। সতর্ক থাকতে হবে বয়স্ক ও শিশুদের ক্ষেত্রে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির পাশাপাশি রোজায় করোনা মোকাবেলায় কঠোর সতর্কতা মানতে হবে।