হেফাজত নেতা মামুনুল হক তাবলীগ জামায়াতের আমলে বাধা দেয়: মামলার বাদী

তাবলিগ জামায়াতের কিছু বিষয় আমল করার সময় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক আমাকে তা বন্ধ করতে বলে। আমি আমল বন্ধ না করতে চাইলে মামুনুলসহ অন্য আসামিরা আমাকে গুরুতর আঘাত করে। আমার মোবাইল ও টাকা ছিনিয়ে নেয়। আমার প্রতি যে অন্যায় অত্যাচার করেছে সেজন্য মামুনুলের বিচার হওয়া উচিত। আর তাদের এই অত্যাচার বন্ধ হওয়া উচিত।

আজ সোমবার (১৯ এপ্রিল) মামুনুলের মামলার বাদী জি এম আলমগীর শাহীন এসব কথা বলেন।

মামুনুলের গ্রেফতার ও রিমান্ডের বিষয়ে জানতে চাইলে মামলার বাদী জি এম আলমগীর শাহীন বলেন, আমি তাবলীগ জামায়াতের একজন কর্মী। হেফাজত নেতা মামুনুল হকসহ অপর আসামিরা অন্যায়ভাবে আমাকে তাবলীগ জামায়াতের কিছু বিষয় আমল করার সময় বাধা দেয়।

এ সময় তারা আমাকে গুরুতর আঘাত করে। আমার মোবাইল ও টাকা নিয়ে যায়। মামুনুলের এই অন্যায়-অত্যাচার বন্ধ হওয়া উঠিত। আমি ধর্মীয় কাজ করি, সেখানে মামুনুলরা বাধা দেয়। এছাড়া তারা সারা বাংলাদেশে দুই বছর ধরে আমাদের (তাবলিগ জামায়াত) আমলে বাধা দিচ্ছে। এই অন্যায়ের বিচার হওয়া উচিত। আশা করি, আমাদের সঙ্গে যে অন্যায় হয়েছে তার বিচার হবে।