এবি ডি ভিলিয়ার্সদের কাতারে নাম লেখালেন মুশফিক

লঙ্কানদের বিপক্ষে আজ দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ধ্বংসস্তুপে দাঁড়িয়ে ১২৫ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলেছেন মুশফিকুর রহিম। দারুণ এই সেঞ্চুরিতে চার নম্বরে ব্যাটিং করেছেন এমন ক্রিকেটারদের সর্বোচ্চ শতকের রেকর্ডে নাম লিখিয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

ওয়ানডেতে ব্যাটিংয়ের চার নম্বর জায়গাটির দায়িত্ব একেক সময় একেক রকম। অননুমেয় এ দায়িত্ব পালন করতে হয় যাকে, তিনি কখনোই ঠাওর করতে পারেন না, তাঁকে কখন মাঠে নামতে হবে। অনেক সময় প্যাডট্যাড পরে ড্রেসিংরুমে দীর্ঘক্ষণ বসে থাকতে হয়, কখনো–বা আবার টপ অর্ডার ভেঙে পড়লে অনেক আগেই নেমে যেতে হয়। টপ অর্ডারের ব্যর্থতার দিনই আসলে চার নম্বর ব্যাটসম্যানের আসল পরীক্ষা। তাঁকে বিভিন্ন ধরনের ব্যাটিংয়ে সামলাতে হয় শুরুর ধাক্কা। চোখ রাখতে হয় স্কোরবোর্ডের দিকেও। দলের সংগ্রহটাকে চলনসই করার দায়িত্বটাও যে তখন তাঁর।

একটা সময় ছিল মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের স্পিনের বিপক্ষে দুর্দান্ত হতে হতো। এখন তো ফাস্ট বোলারদের মাঝের ওভারগুলোতেও ব্যবহার করার চল শুরু হয়েছে। মোট কথা, এখন চার নম্বর ব্যাটসম্যানদের স্পিন-ফাস্ট বোলিং দুইয়ের বিপক্ষেই পটু হতে হয়। সাদা বলের ক্রিকেটে লেগ স্পিনারদের ব্যবহারও বেড়েছে। মোট কথা ব্যাটিং অর্ডারের এ জায়গা অনেক গুরুদায়িত্বের।

এর এই দায়িত্ব ভালভাবেই সামলে আসছেন মুশফিকুর রহিম। পরিসংখ্যানও বলছে সেকথাই। চার নম্বরে ব্যাটিং করতে নেমে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির হাঁকানোর তালিকাতে মুশফিক সেরা পাঁচে জায়গা করে নিয়েছেন। এই পজিশনে ব্যাটিংয়ে করতে নেমে মুশফিক শতক করেছেন ৮ টি। যা বিশ্বের মধ্যে পঞ্চম সর্বোচ্চ। এই তালিকায় সবার উপরে আছেন নিউজিল্যান্ডের রস টেইলর। তার সেঞ্চুরির সংখ্যা ১৯ টি। দুইয়ে থাকা ডি ভিলিয়ার্স করেছেন ১৫ টি সেঞ্চুরি। তিন নম্বরে ডি সিলভার শতকের সংখ্যা ১০ আর মুশফিকের উপরে থাকা মাহেলা জয়াবর্ধনে করেছেন ৯ টি সেঞ্চুরি।